৯৯৯-এ ফোন : নির্যাতিত ছাত্রকে হল থেকে উদ্ধার

0
270

ছাত্রী র‌্যাগিংয়ের রেশ কাটতে না কাটতেই বরিশাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজিতে (আইএইচটি) এবার সিনিয়র ছাত্রদের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক জুনিয়র। গত বৃহস্পতিবার রাতে ইনস্টিটিউটের ছাত্রাবাসে এ ঘটনার শিকার হন ডেন্টাল বিভাগের ওল্ড ফার্স্ট ইয়ারের ছাত্র সালাউদ্দিন। পরে ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে সহযোগিতা চাইলে থানাপুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যায়। নির্যাতনকারী সবাই ছাত্রলীগের অনুসারী বলে জানা গেছে।

এদিকে ঘটনাটি জানাজানি হলে বরাবরের ন্যায় এবারও তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র শিক্ষক হুমায়ুন কবিরকে প্রধান করে ৩ সদস্যের কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অধ্যক্ষ ডা. মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘ধারণা করছি- ডাইনিংয়ের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য সিনিয়র ছাত্ররা ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে অন্য কিছুও হতে পারে। ঘটনা যাই হোক, সিনিয়ররা অপরাধ করেছে।’ ইতিপূর্বে র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় ছাত্রীর আত্মহত্যা চেষ্টার প্রসঙ্গ টেনে অধ্যক্ষ বলেন, ‘তখন বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে উভয়পক্ষকে ছাড় দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার বিন্দুমাত্র ছাড় নয়। কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে একটি উদাহরণ সৃষ্টি করা হবে- যাতে ভবিষ্যতে এর পুনরাবৃত্তি না ঘটে।’

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম জানান, ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে আইএইচটির ছাত্র সহযোগিতা চাইলে পুলিশ পাঠিয়ে তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে তাকে ভর্তি করানো হয়। তবে এ ঘটনায় কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে