২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণ

50


সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রক্তাক্ত বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার নৃশংসতম নারকীয় হত্যাযজ্ঞের ১৭তম বার্ষিকীতে নিহতদের স্মরণে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে আওয়ামী লীগ।

শনিবার সকাল সাড়ে নয়টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নির্মিত বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। প্রথমে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার পক্ষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর কেন্দ্রীয় নেতারা আওয়ামী লীগের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণসহ দলের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতারা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এছাড়াও সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভার আয়োজন করেছে আওয়ামী লীগ। সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখবেন।

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে ২০০৪ সালের এই দিনে রাজধানী বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস বিরোধি শান্তি সমাবেশে চালানো হয় এক নজিরবিহীন গ্রেনেড হামলা। গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে হিংসার দানবীয় সন্ত্রাস আক্রান্ত করে মানবতাকে। আক্রান্ত হন তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঠিক বারবার আগস্ট মাসেই আঘাত আসে আওয়ামী লীগের ওপর, আওয়ামী পরিবারের ওপর। শোকাবহ-রক্তাক্ত আগস্ট মাসেই আরেকটি ১৫ আগস্ট ঘটানোর টার্গেট থেকে ঘাতক হায়েনার দল ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড দিয়ে রক্ত স্রোতের বন্যা বইয়ে দিয়েছিল বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের শান্তি সমাবেশস্থল।

২০০৪ সালের ২৪ আগস্ট ভয়াল ও বীভৎস গ্রেনেড হামলা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী, আদালতে একাধিক সাক্ষীর সাক্ষ্য এবং আসামিদের জবানবন্দীতে উঠে আসে হামলার পরিকল্পনার কথা।

মামলার তদন্ত প্রতিবেদন, গুরুত্বপূর্ণ নথি, সাক্ষীদের সাক্ষ্য, আসামিদের জবানবন্দী এবং সবশেষ মামলার রায় বিশ্লেষণ করেও দেখা গেছে, তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাসহ পুরো আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই এই হামলা চালানো হয়।

সারাবাংলা/এনআর/এএম





Source link