২১তম প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন এস কে সিনহা!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠতম বিচারপতি এস কে সিনহাকে দেশের ২১তম প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। তার নিয়োগের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত। দুই তিন দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রধান বিচারপতি হিসেবে তাকে নিয়োগ দেবেন বলে একাধিক সুত্রে জানা গেছে।এদিকে আগামী ১৪ জানুয়ারি অবসরে যাচ্ছেন বর্তমান প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেন। তিনি ২০১১ সালে ১৮ মে সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হকের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন। প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগে বর্তমানে ৮ জন বিচারপতি রয়েছেন।
জানা গেছে, প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়ে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের নির্দেশনা অনুসারে আইন মন্ত্রণালয় থেকে নথি প্রস্তুত করা হয়েছে। দু-তিনদিনের মধ্যে মন্ত্রণালয় থেকে ওই নথি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হয়ে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে পাঠানো হবে।
নিয়োগ হওয়ার পর ১৫ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি বঙ্গভবনে নবনিযুক্ত প্রধান বিচারপতিকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, `সংবিধান অনুসারে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টি সম্পূর্ণ রাষ্ট্রপতির এখতিয়ার। তিনি প্রধান বিচারপতি হিসেবে যাকে নিয়োগ দেবেন, সে মোতাবেক আইন মন্ত্রণালয় থেকে গেজেট প্রকাশ করা হবে।`
বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বাড়ি মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জের আলীনগর ইউনিয়নের তিলকপুর গ্রামে। তার বাবা প্রয়াত ললিত মোহন সিনহা ও মা ধনবতী সিনহা।
বিচারপতি এস কে সিনহা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এলএলবি পাস করার পর ১৯৭৪ সালে সিলেট জেলা জজ আদালতে অ্যাডভোকেট হিসেবে কাজ শুরু করেন। এরপর ১৯৭৮ সালে হাইকোর্টে এবং ১৯৯০ সালে আপিল বিভাগে আইনজীবী পেশায় আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৯৯ সালের ২৪ অক্টোবর তিনি হাইকোর্ট বিভাগের বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। ২০০৯ সালের ১৬ আগস্ট তাকে আপিল বিভাগে বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। বিচারপতি এস কে সিনহা বর্তমানে জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনেরও চেয়ারম্যান।

!-- Composite Start -->
Loading...
মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.