১/১১ ছিল দেশকে রাজনীতি শূণ্য করার ষড়যন্ত্র : মোস্তফা

0
348

দেশের গণতন্ত্র এখন কঠিন ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। দুর্নীতি-দুর্বৃত্তায়ন এখন মহামারিতে পরিনত হয়েছে। আর এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলে ১/১১ ছিল দেশকে রাজনীতি শূণ্য করার ষড়যন্ত্র হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তিনি বলেন, ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারী দেশকে রাজনীতিক শূণ্য করার চক্রান্ত্র শুরু হয়েছিল। আজও সেই ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। রাজনীতিতে ক্ষমতাসীন ও বিরোধীদের মধ্যে শত মতবিরোধ ও মতপার্থক্য থাকবে। তাই বলে রাজনীতিতে নেতৃত্ব শূন্য করার প্রয়াস কেন, এটা কারো কাম্য নয়। দু:খজনক হলেও সত্য আমাদের রাজনীতিবিদরা ১/১১ কথা ভুলে গেছেন এবং তা থেকে কোন শিক্ষাই গ্রহন করেন নাই।

শনিবার (১১ জানুয়ারী) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে “১/১১ কালো দিবস স্মরণে” বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ১/১১ বাংলাদেশের গনতান্ত্রিক রাজনৈতিক ধারা ব্যাহত করার সংবিধান পরিপন্থি দিন হিসাবে ইতিহাসে কালো দিবস উপলক্ষে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। দেশে আজ যে রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে তার জন্য দায়ি হচ্ছে শাসকদলসমূহের আত্ম অহংকার ও একগুয়েমী নীতি। আর তাদের এই একগুয়েমীর কারণে জনগনের কষ্টার্জিত গণতন্ত্র এখনও হুমকির মুখে।

তিনি আরো বলেন, সংবিধানের ধারাবাহিকতা ও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বাঁধা গ্রস্থ করতেই ১/১১ জেনারেল মঈন উ. আহমদের পরোক্ষ নেতৃত্বে ফখরুদ্দিন আহমদের অসাংবিধানিক সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। আজও সেই কুশিলবরা তাদের ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। রাজনীতিবিদরা জাতীয় ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা করতে ব্যর্থ হলে ১/১১’র কুশিলবরা সেই সুভিধা ভোগ করবে। সুতরাং রাজনীতিবিদদের মধ্যে মতবিরোধ-মতপার্থক্য থাকলেও জাতিয় এজেন্ডা নির্ধারন করে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। তা করতে ব্যর্থ হলে ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করবে না।

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মোঃ শহীদুননবী ডাবলু’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ গ্রহন করেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, যুগ্ম মহাসচিব আতিকুর রহমান, এহসানুল হক জসিম, সাংগঠনি সম্পাদক মোঃ কামাল ভুইয়া, নরসিংদী জেলা সমন্বয়কারী এখলাছুল হক, ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মো. শামিম ভুইয়া, সম্পাদক হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে