১৫ মিনিটের আতঙ্ক, বিশ্বে যা হতে চলছে!

ওয়েবডেস্ক: আজ, শুক্রবার গভীর রাতে (আদতে শনিবার) চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণ করতে চলেছে চন্দ্রযান ২। যে অবতরণ সফল হলে সোভিয়েত ইউনিয়ন, আমেরিকা, চিনের পর বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে চাঁদের মাটি ছোঁয়ার কৃতিত্ব অর্জন করবে ভারত। তবে তার আগে আসতে চলেছে ‘১৫ মিনিটের এক আতঙ্কের মুহূর্ত।’ এমনই মত ইসরোর বিজ্ঞানীদের।


ইসরো জানিয়েছে, আজ রাত একটা থেকে দু’টোর মধ্যে চন্দ্রপৃষ্ঠের পথে নামা শুরু করবে চন্দ্রযান ২-এর ল্যান্ডার বিক্রম। চাঁদের মাটি ছোঁবে রাত দেড়টা থেকে আড়াইটের মধ্যে। বিজ্ঞানীদের যাবতীয় নজর থাকবে অবতরণের অন্তিম ১৫ মিনিটের দিকে। যা ইসরোর চেয়ারম্যান ‘সব চেয়ে দুশ্চিন্তার মুহূর্ত’ বলে উল্লেখ করেছেন। ইসরোর অন্দরের খবর, ‘দুশ্চিন্তার মুহূর্ত’ শুরু হবে রাত ১টা ৪০ মিনিটে। ওই ১৫ মিনিট কেটে যাওয়ার পর ওই অঞ্চলের প্রথম ছবি তুলে পাঠাবে বিক্রম সারাভাইয়ের নামাঙ্কিত ল্যান্ডার।

!-- Composite Start -->
Loading...



শুধু ইসরো নয়, চন্দ্রযান ২ অভিযানের সাফল্যের দিকে তাকিয়ে চাঁদ নিয়ে গবেষণা করে সব দেশই। পাঁচ বছরের মধ্যে আবার চাঁদে মানুষ পাঠাতে চায় আমেরিকা। ভারতের চন্দ্রাভিযান সফল হলে দক্ষিণ মেরুর অঞ্চলকেই নিজেদের অবতরণের জন্য বেছে নেবে নাসা।

আরও পড়ুন আতঙ্কের বউবাজারে রাতারাতি ৫টি বাড়ি খালি করার নির্দেশ, আতান্তরে বাসিন্দারা

গত ২২ জুলাই শ্রীহরিকোটা থেকে উৎক্ষেপণ হয়েছিল চন্দ্রযান ২-এর। এর পর বিশাল পথ পাড়ি দিয়ে অবশেষে চাঁদে নামতে চলেছে চন্দ্রযান ২। এখনও পর্যন্ত ইসরোর কোনো যান কোনো মহাকাশ অভিযানে সফট ল্যান্ডিং করেনি। যে জায়গায় চন্দ্রযান নামতে চলেছে সেখানে কোনো বায়ুমণ্ডল নেই। গর্তে ভরা দক্ষিণ মেরুতে তাই সমতলের খোঁজ চালাচ্ছে চন্দ্রযান। যাতে অবতরণে এবং তার পর ল্যান্ডার-রোভারের নড়াচড়ায় কোনো সমস্যা না-হয়।

ইসরোর সাফল্য দেখার জন্য আজ বেঙ্গালুরুতে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর সঙ্গে থাকবে দেশের ৬০-৭০ জন পড়ুয়া, যারা ইসরোর ক্যুইজে জিতে মোদীর সঙ্গী হওয়ার সুযোগ পেয়েছে। এ রাজ্য থেকে সেই সুযোগ পেয়েছে বর্ধমানের পড়ুয়া ইউসরা আলম। সব মিলিয়ে আজ রাতে যে অনেক ভারতবাসীই জেগে থাকবেন, তা বলাই বাহুল্য।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.