১২ দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ মা-মেয়ের

0
97

বরিশাল, ০৮ ফেব্রুয়ারি – বরিশালের গৌরনদী উপজেলার লক্ষণকাঠী গ্রামের শ্বশুরবাড়ি থেকে নিখোঁজ মা-মেয়ের ১২ দিনেও সন্ধান মেলেনি। সন্ধান না পেয়ে তাদের পরিবার উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে রয়েছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ মুক্তা খানমের (২৬) শ্বশুর বাবুল বেপারী ২৮ জানুয়ারি গৌরনদী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ২৭ জানুয়ারি গৌরনদী উপজেলার লক্ষণকাঠী গ্রামের কুয়েত প্রবাসী দীপু বেপারীর স্ত্রী মুক্তা খানম ও মেয়ে জাহান মাহি (৭) বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। ৮ বছর আগে দীপু বেপারীর সঙ্গে বাবুগঞ্জ উপজেলার রাকুদিয়া গ্রামের মোফাজ্জেল হোসেন বেপারীর মেয়ে মুক্তা খানমের বিয়ে হয়। এর এক বছর পর তাদের কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। দীপু বেপারী প্রবাসে থাকলেও মুক্তা খানম তার মেয়ে মাহিকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতেই থাকেন।

আরও পড়ুন : ভারতই বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মদদ দিয়েছে

মুক্তা খানমের বাবা মোফাজ্জেল হোসেন বেপারী জানান, ২৭ জানুয়ারি মেয়ের শ্বশুরবাড়ি থেকে জানানো, মুক্তা খানম ও মাহিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এরপর আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে তিনি খোঁজাখুঁজি করেন। তবে ১২ দিনেও মেয়ে ও নাতনির সন্ধান মেলেনি।

মুক্তা খানমের শ্বশুর বাবুল বেপারী জানান, ২৭ জানুয়ারি সকালে তিনি বাইরে যান। দুপুরে ফিরে এসে তাদের বাড়িতে দেখেননি। এ ঘটনায় পরদিন (২৮ জানুয়ারি) গৌরনদী থানায় তিনি একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। ১২ দিনে সম্ভাব্য সব স্থানে খুঁজেও তাদের সন্ধান মেলেনি।

গৌরনদী থানার ওসি আফজাল হোসেন বলেন, ‌‘মুক্তা খানম ও তার মেয়ে মাহির সন্ধানে বিভিন্ন থানায় বেতার বার্তা ও ছবি পাঠানো হয়েছে। মুক্তা খানমের মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ঘটনার আগে মুক্তা খানম যাদের সঙ্গে কথা বলেছিলেন বা যোগাযোগ করছিলেন তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের সন্ধান পাওয়া যাবে।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এ/ ০৮ ফেব্রুয়ারি

Source link