হিন্দু সেজে স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে গিয়ে ধরা খেল শিক্ষক, গনপিটুনি পরে যা হল

প্রতিবেশী ডেস্ক |নাম তার জিসান। তিনি একজন স্কুল শিক্ষক। এক স্কুলছাত্রীর সঙ্গে দীর্ঘ দুই বছর ধরে হিন্দু সেজে প্রেম করে আসছিলেন তিনি। এমনকি জিসানের বাড়িতে স্ত্রী এবং সন্তানও রয়েছে। তাও তিনি অবৈধভাবে এক স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন!
এরপর তিনি সিদ্ধান্ত নেন ওই হিন্দু ছাত্রীকে বিয়ে করবেন। জিসান বিয়ে করার জন্য মেয়ের বাড়িতে গেলেন। কিন্তু মেয়ের বাড়ির লোকের সন্দেহ হওয়াতেই জিসানকে আটক করে তার বিষয়ে খোঁজ নেয়া শুরু করেন।

জিজ্ঞাসাবাদ চালাতেই চমকে উঠে সকলেই। তাঁরা জানতে পারে যে ছেলেটি হিন্দু নয় মুসলিম। এবং তাঁর ধর্ম লুকিয়ে হিন্দু পরিচয় দিয়ে ওই মেয়েটির সঙ্গে দীর্ঘ দুইবছর ধরে প্রেমের নাটক করে আসছে।

!-- Composite Start -->
Loading...

এমনকি জিসান এর অনেক আগেই বিয়ে করেছে। বাড়িতে তাঁর স্ত্রীও রয়েছেন। তা স্বত্বেও কি ভাবে এক স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে এই ভাবে প্রেমের অভিনয় করে? নিজেকে হিন্দু পরিচয় দিয়ে প্রায় ২ বছর প্রেম চালিয়ে গিয়ে অবশেষে মেয়ের বাড়িতে বিয়ের কথা বলতে গিয়ে আটক পেশায় প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক জিসান খান।

জিসানের ব্যাপারে সমস্ত কিছু জানাজানি হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন মেয়ের বাড়ির সদস্যরা। তাকে আটক করে রেখে তারা জিসানের বাড়িতে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে জিসানের বাড়ির লোক।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মেদিনীপুর সদরের মহকুমার গড়বেতার রাধানগরে।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.