হিন্দু ধর্মের জাতিবেদ প্রর্থা, ৬ষ্ট শ্রেণীর প্রশ্নে নিম্নবর্ণের হিন্দুদের অপমান

অপরাধ ডেস্কঃ ‌পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে প্রশ্ন এসেছে ‘দলিত বলতে কী বোঝ?‌’‌। চারটি অপশন রয়েছে। তার মধ্যে থেকে সঠিক উত্তর বেছে নিতে হবে। অপশনে রয়েছে– বিদেশি, অচ্ছুত, মধ্যবিত্ত এবং উচ্চবিত্ত। সেই প্রশ্নপত্রের একটি ছবি ভাইরাল এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তামিলনাড়ুর একটি কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেনীর প্রশ্নপত্রে ছাপা হয়েছে এই প্রশ্ন। তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে দেশজুড়ে বিতর্ক। তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ডিএমকে প্রধান এমকে স্ট্যালিন। দেশের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে এইসব প্রশ্ন ছেপে জাত–পাত, সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদকে আরও উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে। যাঁরা এই প্রশ্নপত্র তৈরি করেছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।’‌

এখানেই শেষ নয়। পরীক্ষায় প্রশ্ন এসেছে, ‘‌ড.‌ ভীমরাও আম্বেদকর কোন জাতের লোক ছিলেন?‌’‌ ধনী, দরিদ্র নাকি দলিত!‌ প্রশ্ন এসেছে, ‘‌মুসলমানরা সাধারণত কী করে থাকেন?‌’‌ অপশনে আছে– মুসলিমরা মেয়েদের স্কুলে পাঠায় না, তাঁরা নিরামিষাশী, রোজার সময়ে তাঁরা ঘুমান না নাকি এই তিনটেই। এতেই আরও চটে গিয়েছেন ডিএমকে প্রধান।

যদিও কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের গলায় অন্য সুর। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় যে প্রশ্নপত্র ছড়িয়ে দিয়ে বিদ্যালয়কে বদনাম করা হচ্ছে, সেটি ওই কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের নয়। সিবিএসই জানিয়েছে, ‘‌স্কুলের নিজস্ব পরীক্ষার জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষ প্রশ্নপত্র তৈরি করে না। শুধু দশম ও দ্বাদশ শ্রেনীর ক্ষেত্রে করে। এই প্রশ্নপত্রের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের কোনও যোগ নেই। বিদ্যালয় বদনাম করা হচ্ছে।’‌ ‌

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.