হকার্স ইউনিয়ন সভাপতির ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

0
56

অবিলম্বে চিহ্নিত চাঁদাবাজ হামলাকারী ও মদদদাতাদের গ্রেফতারের দাবি

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হাশিম কবিরের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর ) দুপুর ১২টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় ।
সমাবেশ থেকে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারী চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়।

সংগঠনের সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে চিহ্নিত হামলাকারীদের নাম, পরিচয় উল্লেখ করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের গ্রেফতারের দাবিতে আল্টিমেটাম ঘোষণা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ।
তিনি বলেন, গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মুক্তাঙ্গনে সরকার দলীয় পরিচয়ধারি চিহ্নিত চাঁদাবাজ কালাম, জাবেদ, রিপন ও কেশব গং হকার্স ইউনিয়ন সভাপতির ওপরে চাপাতি, হাতুড়ি ও রড দিয়ে হামলা করে। এ সময় হাশিম কবিরকে কুপিয়ে আহত করা হয়। পরবর্তী সময় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। রাতে পল্টন থানায় হকার নেতৃবৃন্দ মামলা দায়ের করেন। মামলাটি ৫৮(২৫-০৯-২০২০) ক্রমিক নম্বরে নথিভুক্ত করা হয়।
সেকেন্দার হায়াৎ আরও বলেন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আসামিদের গ্রেফতার করা না হলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মতিঝিল বিভাগের ডিসির কার্যালয় ঘেরাও করা হবে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, হকার্স ইউনিয়নের উপদেষ্টা শ্রমিকনেতা জলি তালুকদার, সিপিবি ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল, সংগঠনের সহ-সভাপতি মঞ্জুর মঈন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় নেতা শাহিনা আক্তার প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আবুল হাশিম কবির হকারদের ওপর চলমান চাঁদাবাজি, জুলুম-নির্যাতনের বিরুদ্ধে আপসহীনভাবে লড়াই-সংগ্রাম পরিচালনা করেন। এ কারণে তার ওপর বিভিন্ন সময় কায়েমী স্বার্থবাদী বিভিন্ন গোষ্ঠী আক্রমণ পরিচালনা করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল চিহ্নিত চাঁদাবাজরা তাকে কুপিয়ে আহত করে।

বক্তারা আরও বলেন, হামলা-মামলা নির্যাতনের মধ্য দিয়ে হকার্স ইউনিয়নের লড়াই-সংগ্রামকে দমন করা যাবে না। তারা অবিলম্বে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং হকারদের উপর চলমান চাঁদাবাজি, জুলুম-নির্যাতন বন্ধের দাবি জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে বিপুল সংখ্যক হকারের একটি মিছিল প্রেসক্লাব থেকে পুরানা পল্টন মোড়, মুক্তাঙ্গন, জিরো পয়েন্ট, গুলিস্তান ঘুরে বায়তুল মোকাররম লিংক রোডে এসে শেষ হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Source link