সড়কে ফিটনেসবিহীন বাসঃ মালিক, চালক ও হেলপারের কারাদণ্ড

নিচের বাসটি লক্ষ্য করুন। পিছনের কাঁচের সিংহভাগই ভাঙা। চান্দগাঁও থানার সামনে থেকে বহদ্দারহাটের দিকে আসতেই দেখলাম ১০ নং রুটের এ বাসটি চান্দগাঁও থানার দিকে যাচ্ছে। খালি বাস। বাসটি যাওয়ার কথা কালুরঘাট। তাহলে এখানে কেন? উদ্দেশ্য, থানার সামনের মোড় থেকে ঘুরিয়ে দেয়া।

আমি ফোর্সসহ বহদ্দারহাট মোড়ে এসে অবস্থান নিলাম। মিনিট পাঁচেক পরেই দেখা গেলো বাসটি বহদ্দারহাট মোড়ে হাজির। বাসভর্তি যাত্রী। বাসটি আটকালাম। আটকানোর পর দেখি আরও ভয়ঙ্কর ব্যাপার। পিছনের কাঁচটি প্রায় পুরোটাই ভাঙা। বাসের যাত্রীদের দেখানোর পর তারাও ক্ষোভে ফেটে পড়লেন। দাবি জানালেন কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার।

!-- Composite Start -->
Loading...

চালকের মাধ্যমে ঘটনাস্থলে বাসের মালিককে হাজির করলাম। জিজ্ঞেস করলাম, এ বাস রাস্তায় নামলো কী করে? আর যাত্রীদের নিরাপত্তা এভাবে হুমকির মুখে ফেলার অধিকার আপনাদের কে দিয়েছে? কারও কাছেই সদুত্তর নাই। ফলাফল, চালক ও হেলপারের ১ মাস করে এবং মালিকের ১৫ দিনের কারাদণ্ড। এরকম ফিটনেসবিহীন বাস সড়কে নামালে এখন থেকে চালক, হেলপারের সাথে মালিককেও জেলে যেতে হবে।

চট্টগ্রামের সড়ককে নিরাপদ করতে আমার এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। ও হ্যাঁ আজ মোবাইল কোর্ট চলাকালীন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ক্যাব, চট্টগ্রাম এর যুগ্ম সম্পাদক সেলিম জাহাঙ্গীর সাহেব। ক্যাব এর পক্ষ থেকে তিনি বিআরটিএ’র এ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। তাঁকেও ধন্যবাদ।

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes