স্বাস্থ্য সচিবকে অবরুদ্ধ করে নির্মাণাধীন ক্লিনিকে ভাঙচুর

0
102

কিশোরগঞ্জ, ০৭ ফেব্রুয়ারি – কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার নিজ বাড়িতে স্বাস্থ্য সচিব মো. আবদুল মান্নানকে অবরুদ্ধ করে সেখানে তার স্ত্রীর নামে নির্মাণাধীন কমিউনিটি ক্লিনিকে ভাঙচুর করা হয়েছে।

শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে উপজেলার পূর্বচান্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় স্বাস্থ্য সচিবের প্রটোকলে থাকা কটিয়াদীর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আশরাফুল আলমসহ অন্তত ১২ জন আহত হন।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মাসুদ সহকারী কমিশনারের (ভূমি) আহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বিশ্রামে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন : কিশোরগঞ্জ থেকে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য আটক

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্বাস্থ্য সচিব আগামীকাল রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) কিশোরগঞ্জে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তার নিজ বাড়ি পূর্বচান্দপুর গ্রামে আসেন। বাড়ির পেছনে তার স্ত্রীর নামে কমিনিটি ক্লিনিকের নির্মাণ চলমান রয়েছে। ক্লিনিক থেকে মূল সড়কে ওঠার রাস্তার কাজও চলছে। সকাল থেকে শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সেখানে গিয়ে ক্লিনিক ও রাস্তার কাজ বন্ধ করতে বলে। পরে তারা নির্মাণ শ্রমিকদের থাকার ঘর, আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। তারা স্বাস্থ্য সচিবকে তার বাড়ি অবরুদ্ধ করে গালিগালাজ করে।

স্বাস্থ্য সচিব মো. আবদুল মান্নান বলেন, ‘বাড়ির পাশে আমার স্ত্রীর নামে কমিউনিটি ক্লিনিক তৈরি করছি। সেখানে ছোট্ট রাস্তাও করা হচ্ছে। এটি নির্মাণে একটি মহল বাধা দিচ্ছে। তারা আমার সামনে এসে বলেছে, এখানে কাজ করা যাবে না। এমপি সাহেবের নির্দেশ ছাড়া কোনো কাজ হবে না।’

অসুস্থবোধ করায় টিকা দেওয়ার সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ না দিয়ে ঢাকা চলে যাচ্ছেন বলে জানান জানান স্বাস্থ্য সচিব।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বিকেলে র‌্যাব, পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতিতে স্বাস্থ্য সচিব ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন।

কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৭ ফেব্রুয়ারি

Source link