সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলার আবেদন প্রত্যাহার

67


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: দেশবরেণ্য বুদ্ধিজীবী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিরেটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগে একটি মামলার আবেদন আদালতে জমা দিয়ে আবার সেটি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন সাবেক এক যুবলীগ নেতা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘অসম্মান’ করে নিবন্ধ লেখার অভিযোগ তুলে তিনি মামলার আরজি জমা দিয়েছিলেন আদালতে।

রোববার (২৪ অক্টোবর) মামলার বাদি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন সুজন আরজি প্রত্যাহারের আবেদন করেন। চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম হোসেন মো. রেজা আবেদনটি গ্রহণ করে মামলার আরজি ফেরত দেন।

গত বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) নাজিম উদ্দিন সুজন তিনজনকে অভিযুক্ত করে মামলার আবেদন করেছিলেন আদালতে। বাকি দু’জন হলেন- সাংবাদিক রাশেদ রউফ ও লেখক নেছার আহমেদ।

নাজিমের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান সারাবাংলাকে বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার মামলার আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু আরজিতে ত্রুটিপূর্ণ তথ্য চিহ্নিত করে আদালত সেটি রেখে দেন। নির্ভুল আরজি জমা দেওয়া সাপেক্ষে রোববার মামলা গ্রহণের ‍শুনানির সময় নির্ধারণ করেছিলেন। আজ (রোববার) বাদি নতুন করে আর কোনো আরজি জমা দেননি। দাখিল করা আরজি ফেরত দেওয়ার আবেদন করলে আদালত সেটি মঞ্জুর করেন। বাদি ইচ্ছে করলে পরবর্তীতে ভুলত্রুটি সংশোধন করে পুনরায় মামলার আবেদন করতে পারবেন।’

নাজিম উদ্দিন সুজন সারাবাংলাকে বলেন, ‘যেহেতু মামলার এজাহার ত্রুটিপূর্ণ, তথ্যে কিছু ত্রুটি আছে, আমি সেটি প্রত্যাহার করে নিয়েছি।’

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে গত বছরের ১৭ মার্চ নেছার আহমদের সম্পাদনায় ‘জাতির পিতা জন্মশতবর্ষে চট্টগ্রামের শ্রদ্ধাঞ্জলি’ শীর্ষক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়। প্রকাশনাটির উপদেষ্টা ছিলেন কবি ও সাংবাদিক রাশেদ রউফ। ওই গ্রন্থে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর ‘শেখ মুজিবের গোপন শত্রু’ শিরোনামে লেখা একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়। ওই নিবন্ধে জাতির জনকের প্রতি মানহানিকর বিভিন্ন বক্তব্য আছে উল্লেখ করে মামলার আবেদন করেছিলেন সুজন।

সারাবাংলা/আরডি/আইই





Source link