সিইসি ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে দুদকে আবেদন

0
56

ঢাকা, ০৭ জানুয়ারি- ভুয়া বিলের মাধ্যমে অর্থ লোপাটের অভিযোগে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ইসির ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) অভিযোগ দাখিল করেছেন সুপ্রিমকোর্টের ১০ আইনজীবী।

বৃহস্পতিবার সকালে দুদক চেয়ারম্যানের কাছে অ্যাডভোকেট শিশির মুহাম্মদ মনিরসহ সুপ্রিমকোর্টের ১০ আইনজীবী অভিযোগ দাখিল করেন।

বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করে শিশির মনির।

অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনাররা, বর্তমান সচিব, সদ্য সাবেক সচিব ও নির্বাচন কমিশনের বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা।

একাদশ জাতীয় সংসদ এবং পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রশিক্ষণের নামে প্রায় সাড়ে সাত কোটি (সাত কোটি ৪৭ লাখ ৫৭ হাজার) টাকা ভাতা নিয়ে বিপাকে পড়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ও ইসির নীতিমালা ছাড়া এই অর্থ খরচ করায় সৃষ্টি হয়েছে এমন পরিস্থিতির। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যে আপত্তি দিয়েছে স্থানীয় ও রাজস্ব অডিট অধিদপ্তর। এর পরই ইসি সংশ্লিষ্টদের একরকম ‘ঘুম হারাম’ হয়ে পড়েছে। বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে শুরু করেছে নানা তৎপরতা।

আরো পড়ুন: সংগঠন বিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকলে ব্যবস্থা: কাদের

সূত্র জানায়, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত পদ ছাড়াই ‘বিশেষ বক্তা’, ‘কোর্স পরিচালক’ ও ‘কোর্স উপদেষ্টা’ হিসাবে ভাতা নেওয়া, নির্ধারিত হারের চেয়ে বেশি ভাতা দেওয়া এবং খাত পরিবর্তন করে এসব টাকা ভাতা হিসাবে নেওয়া হয়। কয়েকবার বৈঠক করেও এ টাকার আপত্তি এখনো নিষ্পত্তি করতে পারেনি ইসি। তবে এর বাইরে বেশকিছু অডিট আপত্তি নিষ্পত্তি হয়েছে।

এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমান ইসির বিরুদ্ধে গুরুতর অসদাচরণ, আর্থিক দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ আনেন ৪২ বিশিষ্ট নাগরিক। তারা এ ব্যাপারে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠনের মাধ্যমে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে ১৪ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে লিখিত দাবি জানান। এ বিষয়ে সরাসরি কথা বলার জন্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চেয়ে অনুরোধও জানিয়েছেন তারা।

সূত্র: যুগান্তর

আর/০৮:১৪/৭ জানুয়ারি

Source link