সাংবাদিক নির্যাতন সভ্য রাষ্ট্রের জনগন আশা করে না : বাংলাদেশ ন্যাপ

0
281

সিটি নির্বাচনের দিন ক্রাইম রিপোর্টার মোস্তাফিজুর রহমান সুমন, বাংলাদেশ প্রতিদিনের রিপোর্টার মাহবুব মমতাজী, সোমবার সংবাদ সংগ্রহকালে মাছারাঙা টেলিভিশনের রিপোর্টার হাসনায়েন তানভীর ইমন ও ক্যামেরাম্যান সাইফুল ইসলামসহ বিভিন্ন স্থানে সাংবাদিকদের হেনস্তা, হামলা ও মারধরের তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওযামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

তারা বলেন, দেশের সাধারণ মানুষের পাশাপাশি নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন জাতির বিবেক বলে পরিচিত সাংবাদিক সমাজ। সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে ও প্রকাশ হলেই তারা লৌমহর্ষক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। যেটা কোন সভ্য রাষ্ট্রের জনগন আশা করে না। বিভিন্ন সময় দেশে যে সমস্ত সাংবাদিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন তার কোন সঠিক বিচার না হওয়ার কারণেই দেশে সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন, হয়রানি ও আক্রমণের ঘটনা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। অপরাধীরা একজোট হয়ে সাংবাদিকদের ওপর চড়াও হচ্ছে। সাংবাদিকদের উপর হামলাও করছে আবার তাদের বিরুদ্ধে হামলাকারিরাই মামলা করছে। অপরাধী চক্রের মতো যেন পিছিয়ে নেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও। নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার দায়িত্ব যাদের হাতে তারাও এখন একের পর এক সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, সাংবাদিক হত্যার বিচার এবং হয়রানি-নির্যাতনের ঘটনার ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ না হওয়ায় এসব ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। দ্বিধাবিভক্তি দূর করে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করতে না পারলে এসব ঘটনার পরিসমাপ্তি ঘটবে না। সাংবাদিকদের নিরাপত্তার জন্য ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধের পাশাপাশি একটি কার্যকর সুরক্ষা কৌশল ও নীতিমালাও জরুরি বলে মনে করেন দেশের জনগন।

তারা বলেন, বিচারহীনতার কারণে সাংবাদিকদের ওপর পুলিশ, সন্ত্রাসী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা নির্যাতন এবং হয়রানি করছে। হত্যাকান্ড-সহ সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতনের ঘটনার সঠিক বিচার হলে এসব ঘটনা ভয়াবহ অবস্থায় পৌঁছত না।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, সাংবাদিকরা একটি জাতির বিবেক। সমাজের দর্পণ। তাদের নির্যাতনে সাথে জড়িতেদের চিহ্নিত করে অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান রাষ্ট্রের ও সরকারের দায়িত্ব। তারা এই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হলে গণমাধ্যম ভয়াবহ বিপর্যয়ের মধ্যে পড়তে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে