‘শুধু বিএনপির নয় দেশ-জাতির সংকট’

59


ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ঠাকুরগাঁও: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আজকের সংকটটা শুধু বিএনপির নয়, সারাদেশের সংকট, জাতির সংকট। যারা যুদ্ধ করে স্বাধীনতা অর্জন করেছিলেন, তাদের লক্ষ্য ছিল একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা। কিন্তু, সেই ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে।’

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের হাওলাদার কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির বর্ধিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করে নিয়েছে। মানুষ বিচার পায় না, জীবনের নিরাপত্তা নেই। যারা চুরি করছে, দুর্নীতি করছে তাদের কোন জবাবদিহিতা নেই। বিদ্যুতের জন্য পাওয়ারপ্ল্যান্টে টেন্ডার ছাড়াই ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে। তারা এখন বিদ্যুৎ দিতে পারছে না। প্রত্যেকটি ক্ষেত্র দুর্নীতিতে ভরে গেছে। নিজেদের মতো করে পার্লামেন্ট তৈরি করা হয়েছে। সেখানে দুর্নীতি নিয়ে; মানুষের সমস্যা নিয়ে কোন আলোচনাই হয় না।

তিনি আরও বলেন, ‘শুধু এক ব্যক্তি আর সংসদনেতার তোষামোদি ছাড়া পার্লামেন্টে আর কিছু হয় না। গণতন্ত্রে যেখানে বহুদলীয় ব্যবস্থা থাকতে হবে, সেখানে শুধু এক ব্যক্তির পূজা হয়। সারাদেশে এক ব্যক্তির ছবি টাঙ্গানো হয় আর স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানকে নিয়ে বিষেদগার-কটূক্তি করা হয়।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘গণতান্ত্রিক দেশে ৩৫ লাখ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মামলা দেওয়া হয়েছে। কথা বললেই মামলা। কোথাও বসে মিটিং করলেও বলা হচ্ছে নাশকতার পরিকল্পনা। যা হাস্যকর এবং অরুচিকর হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘জনগণের দাবি নিরপেক্ষ সরকার গঠন করে তার অধীনে নির্বাচন দেওয়া। যেখানে মানুষ তার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। দলমত নির্বিশেষে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজনৈতিক নেতাদের মুক্ত করতে হবে।’

এদিকে, জেলা বিএনপির বর্ধিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির সভাপতি তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আমীন, অর্থ সম্পাদক শরিফ আহম্মেদ, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদসহ তৃণমূল নেতৃবৃন্দ।

সারাবাংলা/একেএম





Source link