শীতে গোড়ালিতে ব্যথা

0
316

৩৭ বছর বয়সী রহিমা খাতুন ঘুম থেকে উঠে ফ্লোরে পা রাখলেন। পায়ের নিচে তীব্র ব্যথা। অনেকক্ষণ বসে থেকে উঠে দাঁড়ালেন। ব্যথা আরও তীব্র হলো। একটু হাঁটাহাঁটি করলেন। ব্যথা কিছুটা কমল। এভাবে খানিকক্ষণ বসে থেকে উঠলে প্রথমে খুঁড়িয়ে হাঁটলেই ব্যথা কমে আসে। প্রথমদিকে রহিমা খাতুন এ সমস্যা পাত্তা দেননি। পরে ব্যথার মাত্রা ক্রমে বাড়তে থাকলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

সাধারণত দুটি কারণে এমন সমস্যা হয়। প্রথম কারণ প্লান্টার ফ্যাসায়টিস। দ্বিতীয় কারণ ক্যালকেনিয়াম স্পার। এটি নির্ণয়ে এক্স-রের প্রয়োজন হয়। অনেক সময় ক্যালকেনিয়াম হাড়ের নিচে ছোট হুকের হাড় বৃদ্ধি পায়, মেডিক্যাল পরিভাষায় যাকে বলে ক্যালকেনিয়াম স্পার।

ওষুধের পাশাপাশি ফিজিওথেরাপি চিকিৎসায় এ সমস্যায় ভালো ফল পাওয়া যায়। পাশাপাশি পালন করতে হয় কিছু নিয়মকানুন। যেমন- সব সময় নরম জুতা ব্যবহার করতে হবে। হাঁটাচলার সময় হিল কুশন ব্যবহার করা যাবে না। শক্ত স্থানে খুব বেশি সময় দাঁড়িয়ে থাকা যাবে না বা শক্ত স্থানে বেশি হাঁটাচলা করাও উচিত নয়। বেশি ওজনের বাজারের থলি, পানিভর্তি বালতি ইত্যাদি বহন করা যাবে না।

সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামার সময় মেরুদণ্ড সোজা রেখে হাতে সাপোর্ট দিয়ে উঠবেন ও নামতে হবে এবং যথাসম্ভব গোড়ালির ব্যবহার কম করবেন। ব্যথা থাকা অবস্থায় কোনো ধরনের ব্যায়াম করা যাবে না। হাই হিল জুতা পরা সম্পূর্ণ নিষেধ। মোটা ব্যক্তির ওজন কমাতে হবে এবং সব সময় ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

লেখক : বাতব্যথা, প্যারালাইসিস রোগে ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞ

চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালট্যান্ট

ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল, ধানমন্ডি, ঢাকা। ০১৭৮৭১০৬৭০২

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে