শিক্ষিকার ভূল ধরাতেই এক ছাত্রীকে রক্তাক্ত করেন সরকারি প্রাঃ শিক্ষিকা মরিয়ম

ইউসুফ হোসেন নিরব, ভোলা প্রতিনিধি॥ শিক্ষক শিক্ষিকা শিক্ষার্থীদের শাসন করবেন এটাই স্বাভাবিক কিন্তু যখন মাত্রাতিরিক্ত হয়ে যায় তখন কি করার আছে? শিক্ষিকার ভুল ধরিয়ে দেওয়ায় শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে নাক ফাটালেন শিক্ষিকা। ঘটনাটি ঘটে ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ১২ নং গুপ্তমুন্সি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। আহত ৪র্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী আখিনুর জানান মঙ্গলবার (৬ই আগষ্ট) আমি ক্লাসে মরিয়ম ম্যাডামকে পড়া দিতে গেলে হঠাৎ মরিয়ম ম্যাডাম একটি শব্দ ভুল বললে আমি ধরিয়ে দেওয়ায় আমাকে ম্যাডাম বলেন তুই আমার থেকে বেশি বুঝিস ? একথা বলেই আমাকে মারতে থাকে, এক পর্যায়ে ম্যাডাম আমার নাকে থাপ্পর মারলে নাকের ভিতর থেকে রক্ত বের হতে থাকে। তখন ম্যাডামরা আমাকে প্রথমে ডেটল দিয়ে রক্ত বন্ধ করার চেষ্টা করে। বন্ধ না হওয়ায় বাহিরে থেকে লতাপাতা দিয়ে কোন রকম বন্ধ করে আমাকে বলেন তুই যদি এগুলো বাড়িতে গিয়ে কাউকে বলিস তাহলে তোর পরীক্ষার সময় তোকে আর সহযোগীতা করব না। ঐ শিক্ষার্থীর নানী জাহানারা বেগম জানান আমার নাতনীকে পিটিয়ে আবার বাড়ীতে এসে না বলার জন্য ভয় দেখিয়েছে ঐ ম্যাডাম। আমি খবর পেয়ে স্কুলে যাইতে চাইলে পথের মধ্যে ম্যাডামের সাথে দেখা হয়। কথা বলতে চাইলে তিনি অটোতে উঠে চলে যান। অভিযোগের বিষয়ে মরিয়ম বেগমের সাথে ফোন দিলে তার স্বামী রিসিভ করে ঘটনা শুনে বলেন এগুলো আমি শুনেছি। আপনি জানেন আমার স্ত্রী ভোলার এক শিক্ষক নেতার আতœীয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেক শিক্ষার্থী জানান মরিয়ম ম্যাডাম ক্লাসে এসে আমাদেরকে বিভিন্ন খারাপ ভাষায় গাল মন্দ করেন এবং তিনি সারাক্ষন মোবাইলে কথা বলেও জানান তারা।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.