শতবর্ষের ওয়েবসাইটে উল্টে গেছে ২ ঢাবি উপাচার্যের মেয়াদ

80


ঢাবি করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ উপলক্ষে তৈরি ওয়েবসাইটে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই উপাচার্যের মেয়াদকাল সংক্রান্ত তথ্য ভুল দেওয়া হয়েছে। এছাড়া দায়িত্ব পালনের ক্রমবিন্যাসগত ভুল তথ্যও দেওয়া হয়েছে এই ওয়েবসাইটে।

ওয়েবসাইটে দেখাচ্ছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫তম উপাচার্য অধ্যাপক এস এম এ ফায়েজ এবং ২৬তম উপাচার্য অধ্যাপক এ এফ এম ইউসুফ হায়দার। এ ক্ষেত্রে এস এম এ ফায়েজকে দেখানো হচ্ছে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য হিসেবে। তার মেয়াদকাল ওয়েবসাইটে উল্লেখ আছে ২০০২ সালের ১ আগস্ট থেকে একই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। অর্থাৎ দেড় মাসের কিছু বেশি সময় ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে সাইটে।

একই ওয়েবসাইটে ঢাবির ২৬তম উপাচার্য হিসেবে দেখানো হয়েছে অধ্যাপক এ এফ এম ইউসুফ হায়দারকে। তার মেয়াদকাল দেখাচ্ছে ২০০২ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২০০৯ সালের ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত। অর্থাৎ ছয় বছরেরও বেশি সময় অধ্যাপক ইউসুফ হায়দার উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে এই ওয়েবসাইটে।

ঢাবির শতবর্ষের ওয়েবসাইটে উল্লেখ করা এই দুই উপাচার্যের মেয়াদকাল তাদের প্রকৃত মেয়াদকালের সম্পূর্ণ উল্টো। বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারে সংরক্ষিত পুরোনো পত্রিকা থেকে প্রাওয়া তথ্য বলছে, ২০০২ সালে ২৩ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হলে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় ২৮ জুলাই থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করেন তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল্লাহ। পরে শিক্ষার্থীদের চাপের মুখে উপাচার্যের পদ ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। তার জায়গায় ১ আগস্ট ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন অধ্যাপক ড. ইউসুফ হায়দার।

দেড় মাসের কিছু বেশি সময় দায়িত্ব পালনের পর অধ্যাপক ইউসুফ হায়দার দায়িত্ব ছাড়লে ২৩ সেপ্টেম্বর ২৬তম উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন অধ্যাপক ফয়েজ। পরে দুই দফায় মেয়াদ বাড়ে তার। ২০০৮ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

ঢাবির শতবর্ষের ওয়েবসাইটে অবশ্য দৃশ্যমান ভুল এটিই প্রথম নয়। এই সাইটে ঢাবি বাংলা বিভাগের নামটিও ভুল বানানে লেখা হয়েছিল। ওয়েবসাইটে ‘Department of Bangla’-এর জায়গায় ‘Department of Bengla’ লিখে রাখা হয়। পরে সমালোচনার মুখে বানানটি সংশোধন করে নেয় কর্তৃপক্ষ।

ঢাবির শতবর্ষ উপলক্ষে নির্মিত এই ওয়েবসাইটে এরকম ভুল তথ্য উপস্থাপনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আসিফ হোসেন খান সোমবার (২৩ আগস্ট) রাতে সারাবাংলাকে বলেন, ওয়েবসাইটটি এখনো নির্মাণাধীন। উন্মুক্ত করা হলে সব তথ্য ঠিক করে দেওয়া হবে।

অধ্যাপক আসিফ ওয়েবসাইটটি উন্মুক্ত নয় দাবি করলেও ঢাবির শততম বর্ষপূর্তি হয়েছে গত ১ জুলাই। এরপর থেকেই ওয়েবসাইটটিও মূলতই উন্মুক্ত ছিল সবার জন্য। ওই ওয়েবসাইটের https://100.du.ac.bd/bn/history/all-du-vice-chancellors লিংকেই ছিল বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্যদের তথ্য, যেখানে অধ্যাপক ইউসুফ হায়দার ও অধ্যাপক ফায়েজের মেয়াদকাল উল্টে দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) অবশ্য শতবর্ষের ওয়েবসাইট এবং উপাচার্যদের তালিকার এই লিংকে প্রবেশে সমস্যা দেখা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও সাড়া পাওয়া যায়নি।

ঢাবির শতবর্ষের ওয়েবসাইটে উপাচার্যের পূর্ণাঙ্গ তালিকার ছবি দেখুন এখানে—

শতবর্ষের ওয়েবসাইটে উল্টে গেছে ২ ঢাবি উপাচার্যের মেয়াদ

সারাবাংলা/আরআইআর/টিআর





Source link