রায় পরিবর্তনের বিচারক বদলি আইনের শাসনের পরিপন্থি : কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন

0
218

পিরোজপুরে তাৎক্ষিণক বিচারকের রায় পরিবর্তন এবং সরকারী দলের সাবেক সংসদ সদস্য ও তার স্ত্রীর জামিনের জন্য ৪ ঘন্টার মধ্যে বিচারক বদলী আইনের শাসনের পরিপন্থী বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন।

শুক্রবার ( ৬ মার্চ ) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও সমন্বয়ক মো. মহসিন ভুইয়া বলেন, এটা বিচার বিভাগের ওপর নির্বাহী বিভাগের অবৈধ হস্তক্ষেপ এবং আইনের শাসনের পরিপন্থী। এ ধরনের ঘটনা বিচার বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্থ করতে বাধ্য। একই সাথে বিচারকদের স্বাধীন ও ন্যায়সঙ্গত রায়কে বাধাগ্রস্থ করার পাশাপাশি রায় প্রদানে তারা সকল সময় দ্বিধাগ্রস্থ ও ভীতির মধ্যে থাকবেন।

নেতৃত্রয় তাৎক্ষণিকভাকে পিরোজপুরের বিচারক বদলির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা প্রকাশ করে বলেন, এ ঘটনা সরকারের বিচার বিভাগের ওপর হস্তক্ষেপ ও নিয়ন্ত্রণের নগ্ন প্রকাশ। একইসঙ্গে এ ঘটনায় আইনমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্য, ‘পরিস্থিতি সামাল দিতে বিচারক বদলি’। এটা প্রমাণ করে ক্ষমতাসীনদের মধ্যে প্রভাবশালীরা দুর্নীতিবাজ হলেও তারা আইনের ঊর্ধ্বে এবং তাদের জামিন দিতে সরকার যে কোন অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িত হতে বাধ্য। পিরোজপুরের বিচারক বদলির মাধ্যমে আরো প্রমানিত হলো সেখানে সাবেক সংসদ সদস্য সরকারের চাইতেও শক্তিশালী। আর সে কারণেই আইনমন্ত্রী দেশের সকল নীতি-নৈতিকতাকে উপেক্ষা করে বিচারক বদলী করে আসামীকে জামিনের ব্যবস্থা করেছেন।

তারা আরো বলেন, পিরোজপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলায় জামিন না দেওয়ায় জেলা ও দায়রা জজকে আইন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করে ভারপ্রাপ্ত বিচারক দিয়ে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে জামিন দেওয়ার ঘটনা বিচার বিভাগের ইতিহাসে নজিরবিহীন। এমনিতেই বিচার ব্যবস্থার ওপর জনগণের আস্থা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে। আর এ ঘটনায় আস্থাহীনতা আরো দৃঢ় হলো। যার ফলে দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি প্রাধান্য পাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে