রাজশাহী পুঠিয়া পৌরসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রচারণা শুরু

0
140

লিয়াকত, রাজশাহী ব্যুরোঃ প্রথম ধাপে নির্বাচন কমিশন রাজশাহী পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে। তফসিল ঘোষণা অনুযায়ী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় ১ ডিসেম্বর, বাছাই ৩ ডিসেম্বর, প্রত্যাহারের শেষ সময় ১০ ডিসেম্বর।

ইতি মধ্যেই পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশ।

আবার আসন্ন পুঠিয়া পৌরসভায় আগে থেকেই এলাকায় মাঠ চোষে বেড়াচ্ছেন অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।গত ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর এই পুঠিয়া পৌরসভাতে নির্বাচন হয়েছিল। সেই হিসেবে চলতি বছরের শেষের দিকে এখন নির্বাচন হওয়ার কথা। সেই হিসাবে আগামী ২৮ ডিসেম্বর নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করেছে নির্বাচন কমিশন।
তাই পৌর নির্বাচনে মনোনয়ন নিতে বেশ কয়েক মাস ধরেই বড় দুই দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা তৎপরতা শুরু করেছে। এবং জেলা ও কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতাদের সাথে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।
সম্ভাব্য প্রার্থীদের গণসংযোগের পাশাপাশি দেখা যাচ্ছে শোডাউন ও উঠান বৈঠক করতে । রাজনৈতিক মাঠের বাইরে থাকা বিএনপিও বসে নেই। তারাও নির্বাচনকে ঘিরে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে দলের অনুমতি পেলেই তারা নির্বাচন করবেন।
পৌরসভায় সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থাতে রয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। তবে তেমন কোন তৎপরতা নেই বিএনপির।
মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ১১ জনের নাম। আলোচনায় সর্বসম্মতিক্রমে ওই ১১ জনের নামের একটি তালিকা জেলা আ’লীগ বরাবর পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হচ্ছেন, সাবেক জেলা আ’লীগের সদস্য অধ্যক্ষ মো. গোলাম ফারুক, পুঠিয়া উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান, পৌর আ’লীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার রহিম কনক, বর্তমান পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সারোয়ার শফিক হীরক, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান সৌরভ, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা এবিএম শাখাওয়াত হোসেন বাসার, পৌর আ’লীগ নেতা খালিদ হোসেন লালন ও সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম টিপু।

এছাড়ও বিএনপির মনোনয়ন দৌড়ে রয়েছেন, পুঠিয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র ও সাবেক পৌর বিএনপির সভাপতি আসাদুল হক আসাদ, সাবেক উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সবেক পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আল মামুন খান, সাবেক পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল মিয়া, এবং সাবেক রাজশাহী জেলা ছাত্রদলে যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান পৌর আহবায়ক কমিটির সদস্য আবুল হোসেন প্রমুখ।এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জয়নুল আবেদীন বলেন, তফসিল ঘোষণা হয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি নেয়া আছে।