রাজশাহীতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অপসারণের দাবিতে যুবমৈত্রীর মানববন্ধন

0
181

লিয়াকত হোসেন, রাজশাহী ব্যুরোঃ
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেককে অপসারণসহ ৯ দফা দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ যুবমৈত্রী রাজশাহী জেলা ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ। শনিবার (০৩ অক্টোবর) রাজশাহী সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে সংগঠনটির আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এসব দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন যুবমৈত্রীর রাজশাহী মহানগর সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, করোনার থাবায় সারা বিশ্ব আজ বিপর্যস্ত ও স্থবির।
করোনায় আমাদের স্বাস্থ্য খাতের চিত্র জনগণেরর সামনে উন্মোচিত হয়েছে। এ খাতের সর্বত্র ছিলো অব্যবস্থাপনা, লুটপাট, সমন্বয়হীনতা, দুর্নীতি, সজনপ্রীতি ও লুটপাটের মহাৎসব। স্বাস্থ্য খাতের এতো ভয়াবহ অবস্থায় বর্তমান স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদে থাকার কোন অধিকার নেই। এই ব্যর্থতার দায়ে তাকে অপসারণ করা উচিৎ। আমরা তার দ্রুত আপসারণ চাই।

নারী নির্যাতনসহ সামাজিক অস্থিরতা নিরসনের দাবি জানিয়ে বক্তারা আরও বলেন, নারীর মর্যাদা ভূলুণ্ঠিত, ধর্ষণ, নারী নির্যাতন নিত্যদিনের ঘটনায় পরিণত হয়েছে। স্বাধীন দেশে যা কোনো ক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। ধর্ষণের পাশাপাশি সমাজে ভয়ংকর কিশোর গ্যাংয়ের উত্থান হয়েছে। অনুসন্ধানে ধর্ষক ও কিশোর গ্যাং এবং তাদের কথিত বড় ভাইরা ক্ষমতার সুশীতল ছায়ায় অবস্থান করছে। এখনই এদের রুখতে হবে। অন্যথায় সামাজিক অস্থিরতা আরও ঘনিভূত হবে।

যুবমৈত্রীর ৯ দফা দাবিগুলো হলো— করোনা টেস্ট বাড়ানো ও বিনামূল্যে ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করা, কর্মহীন যুবকদের বেকার ভাতা ও রেশনিং ব্যবস্থা চালু করা, স্বাস্থ্যখাতসহ সকল খাতের দুর্নীতির বিচার করা, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সুদবিহীন ঋণ প্রদান করা, সকলের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা, করোনায় আর্থিক সুবিধা প্রদান করা, ইন্টারনেট ও কল চার্জ অর্ধেকে নামিয়ে আনা এবং মাদক ও সামাজিক নিরাপত্তাহীনতা রুখে দেয়া।

যুবমৈত্রীর রাজশাহী মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক বকুলের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- রাজশাহী জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক তোতা, যুবমৈত্রীর জেলার সভাপতি মনিরুজ্জামান পান্না, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম আক্তার অনিক, জেলা সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন, কেন্দ্রীয় সদস্য সাহারুল ইসলাম টিয়া, নগর সহ-সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, নগর সহ-সভাপতি শামীম ইমতিয়ার সুমন প্রমুখ।