যুক্তরাষ্ট্রে আকস্মিক বন্যায় ২১ মৃত্যু

80


আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি অঙ্গরাজ্যে আকস্মিক বন্যায় অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন ২০ জন। বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।

স্থানীয় সময় রোববার (২২ আগস্ট) সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে কাউন্টির ওয়েভারলি শহরের পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের প্রধান গ্রান্ট গিলেস্পি বলেন, কয়েকদিনে প্রাণহানিসহ ব্যাপক ক্ষতির অভিজ্ঞতা হয়েছে।

স্থানীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা সংস্থা জানিয়েছে, শুধুমাত্র ওয়েভারলি শহরেই বন্যায় ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গিলেস্পি জানান, ঝড়-বৃষ্টির কারণে ৯১১সহ মোবাইল ফোনের পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকেই স্বজনদের খোঁজ পাচ্ছিলেন না। তাই প্রথমে নিখোঁজের সংখ্যা অনেক বেশি বলে অনুমান করা হয়েছিল। পরে দেখা গেছে নিখোঁজের প্রকৃত সংখ্যা ২০।

ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় ওয়েভারলিতে স্কুল, ঘরবাড়ি ও অন্যান্য স্থাপনাসহ অবকাঠামোর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ প্রধান। ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে কেন্দ্রীয় সরকারের সহায়তা প্রয়োজন হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

এদিকে, বন্যা উপদ্রুত অঞ্চলে রোববার (২২ আগস্ট) রাত ৮টা থেকে কারফিউ বলবৎ থাকবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে হামফ্রিস কাউন্টি কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে, ওয়েভারলিতে শত শত বাড়ি বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে এবং অনেক এলাকা বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে বলে টেনেসির স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া বিভাগ এক টুইটার বার্তায় জানিয়েছে, হামফ্রিস কাউন্টির ম্যাকুয়েন শহরে শনিবার দিনব্যাপী ১৭ ইঞ্চি বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে টেনেসি অঙ্গরাজ্যে ২৪ ঘণ্টা বৃষ্টিপাতের ‘সর্বকালের রেকর্ড সম্ভবত ভেঙে গেছে’।

টেনেসিতে আকস্মিক বন্যায় ‘হঠাৎ করে অনেক মানুষের শোচনীয়’ মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এছাড়াও, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর জন্য হোয়াইট হাউস সব ধরনের সাহায্য, সহযোগিতা করবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

সারাবাংলা/একেএম





Source link