ম্যাথ অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের ১ম স্বর্ণপদক!

165


সাম্প্রতিক একটি খবরে জানা যায় যে, সম্প্রতি ঘটে যাওয়া এশিয়া প্যাসিফিক ম্যাথমেটিকাল অলিম্পিয়াড (APMO) এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশি দলটির মধ্যে মোহাম্মদ মারুফ হাসান নামের একজন অলিম্পিয়াড একটি স্বর্ণপদক অর্জন করেছেন। এরই সাথে বাংলাদেশ ২১তম স্থান অর্জন করেছে এবছরের প্রতিযোগিতায় এবং অন্যান্য প্রতিযোগিরাও নানান পদক অর্জনে সক্ষম হয়েছেন বলেও জানা যায়।

মোহাম্মদ মারুফ হাসান বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার অধিবাসী একজন শিক্ষার্থী যিনি ময়মনসিংহ জেলার সরকারী আনন্দমোহন কলেজে লেখাপড়া করছেন। এছাড়াও তিনি গত ২০১৯ এবং ২০২০ সালের ম্যাথ অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতায়ও অংশগ্রহণ করেছিলেন। সেখানে তিনি যথাক্রমে একটি সিলভার এবং একটি ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছিলেন। মারুফ হাসানের ভাষ্যমতে, তার পূর্ববর্তী কৃতিত্বগুলোকে ছাঁড়িয়ে এবার প্রতিযোগিতায় তার স্কোর ছিলো ২০।

গত ২৯ জুন, APMO সংগঠনকারীরা এ খবরটি প্রকাশ করেন। এ বছর এ ম্যাথ অলিম্পিয়াডে প্রায় ৩৭ টি দেশ থেকে অংশগ্রহণ করেছেন ৩৪৪ জন প্রতিযোগী। এরই মধ্যে বাংলাদেশ থেকেও ১০জন প্রতিযোগীকে বাছাই করা হয়। বাছাই পর্বটি চলতি বছরের মার্চের শুরুর দিকে বাংলাদেশ ম্যাথমেটিকাল অলিম্পিয়াড কমিটি (BDMO) এর ফেসবুক পেজ এ ইস্তেহার প্রদানের মাধ্যমে শুরু করা হয়। সেখান থেকে ঢাকার কারোয়ান বাজারে অনুষ্ঠিত একটি লোকাল প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ১০ জন সেরা প্রতিযোগীর উত্তরপত্র APMO তে পাঠানো হয়। 

এ বছরের এ ১০ জন প্রতিযোগীর মধ্যে রয়েছেন, সরকারী আনন্দমোহন কলেজের মোহাম্মদ মারুফ হাসান, ভিকারুননিসা নুন স্কুল এন্ড কলেজের নুঝাত আহমেদ, নটরডেম কলেজের আদনান সাদিক, মুহাইমিনুল ইসলাম নিনাদ, তাহমিদ হামিম চৌধুরী, ফাহিম ফাইয়াজ এবং মুত্তাকিন আহমেদ চৌধুরী, সেন্ট জোসেফ হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুলের দেওয়ান সাদমান হাসান, মতিঝিল সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের তাহমিম নূর এবং ঢাকা রেসিডেনশিয়াল মডেল কলেজের ফুয়াদ আল আলম। 

মারুফ হাসানের পাশাপাশি এ অলিম্পিয়াডে সিলভার পদক পেয়েছেন গ্রুপটির একমাত্র মহিলা সদস্য নুঝাত আহমেদ এবং ব্রোঞ্জপদক পেয়েছেন আদনান সাদিক। নুঝাত আহমেদ এ বছর ইউরোপিয়ান গার্লস ম্যাথমেটিকাল অলিম্পিয়াডেও একটি সিলভার পদক অর্জন করেন। 

বাংলাদেশ এ বছরসহ গত ১১ বছর ধরে অর্থাৎ ২০১০ সাল থেকে APMO তে অংশগ্রহণ করে আসছে। এ পর্যন্ত বহুবার বাংলাদেশ সেরা ২০টি দেশের মধ্যে আসতে পেরেছে এবং অনেক পদক অর্জন করেছে। এরই মধ্যে রয়েছে মোট ৭৬টি পদক এর সম্মননা যার মধ্যে ১১ টি সিলভার, ৩৪টি ব্রোঞ্জ এবং ৩১টি বিশেষ পদক উল্লেখযোগ্য। 

APMO এর প্রতিযোগিতাটি পাঁচটি প্রশ্নের ৪ ঘন্টায় জবাব দেওয়ার মাধ্যমে হয়ে থাকে। প্রতিটি প্রশ্নের মান এক্ষেত্রে ৭ করে। এ প্রতিযোগিতায় প্রবেশ করতে অবশ্যই প্রতিযোগিকে একজন স্কুল বা কলেজের শিক্ষার্থী হতে হবে যার বয়স অবশ্যই ২০ এর নিচে থাকতে হবে। 

এরকম আরো ব্লগ পড়তে ক্লিক করুন এখানে

সাবিকুন্নাহার আফরা

ইন্টার্ন, কন্টেন্ট রাইটিং ডিপার্টমেন্ট

YSSE



Source link