মেহেরপুর গাংনীতে রাস্তা নির্মানে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে

84

মেহেরপুর প্রতিনিধি: মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার তেতুলবাড়িয়া থেকে কাজিপুর পর্যন্ত পাকা রাস্তা নির্মানে ব্যাপক অনীয়ম হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রায় ৭ কিঃমিঃ পাকা রাস্তা নির্মানে ব্যায় ধরা হয়েছে ৫ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকা।
গাংনী উপজেলা প্রকৌশলী অফিস সুত্রে জানা যায়, তেতুলবাড়িয়া চেয়ারম্যান পড়া নাজমুল হুদার বাড়ির সামনে থেকে ১১শ’৭৫ মিটার উত্তর দিকে মাঠপাড়া, মাঠপাড়া থেকে ২৪শ’৪৮ মিটার গরিবপুর গ্রাম পর্যন্ত এবং তেতুলবাড়িয়া বিজিবি ক্যাম্প থেকে কাজিপুর গ্রামের রাস্তা পর্যন্ত ৩৭০২ মিটার রাস্তার কাজ চলমান রয়েছে। এর মধ্যে সাড়ে ৫ কিঃমিঃ রাস্তা ডবিøউ বি এম সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ গোলাপ আলি শেখ। এদিকে নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা নির্মানে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ঠিকাদারের লোকজনকে স্থানীয়রা বারবার আপত্তি করার পরও তারা কর্ণপাত করেননি।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী রাস্তাটি নির্মান কাজে মেহেরপুরের মেসার্স ইসলাম ব্রাদার্স এর ঠিকাদারি লাইসেন্স ধারী ঠিকাদার মোঃ ফারুক হোসেন এর মধ্যে চুক্তিবদ্ধ হয়। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের ৫ তারিখে রাস্তাটি শুরু হয় ১ বছরের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার কথা থাকলেও আরও ১বছরের বেশি সময় অতিবাহিত হলেও এখনও কাজটি সম্পন্ন করতে পারেনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। পরে দু’ দফা সময় বাড়ানো হয়।
নিম্মমানের কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা প্রকৌশলী গোলাপ আলি শেখ সরেজমিনে পরিদর্শন করে কাজে নি¤œ মানের সামগ্রীর প্রমাণ পান এবং তা অপসারণের নির্দেশ দেন।
সাংবাদিকদের কাছে তিনি নিম্ম মানের সামগ্রীর কথা স্বীকার করে বলেন, কিছু ইট আছে নি¤œমানের এবং খোয়ার সাইজও বড় এবং যে বালি এখানে সরবরহ করা হয়েছে তার মধ্যে মাটির উপস্থিতি রয়েছে।
তবে স্থানীয়দের দাবি রাস্তা নির্মান কাজে ব্যবহৃত সকল সামগ্রীই শুরু থেকেই পঁচা ইট মাটি মিশ্রিত বালু এমনকি খোয়ার সাইজও বড় করা হচ্ছে। কোন কোন ক্ষেত্রে খোয়ার সাইজ আধলা ইটের সমান রাখা হচ্ছে। ১৯ শে আগষ্ট প্রকৌশলী গোলাপ আলি শেখ ঠিকাদার মোঃ ফারুক হোসেনকে নি¤œ মানের সামগ্রী সরিয়ে নেওয়ার জন্য চিঠি দিয়েছেন বলে সাংবাদিকদের অবহিত করেছেন। নির্দেশ পাওয়ার তিন দিনের মধ্যে নিম্ম মানের সামগ্রী সরিয়ে না নিলে পরবর্তিতে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেবেন বলেও তিনি জানান।
এদিকে ঠিকাদার মোঃ ফারুক হোসেনের সাথে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।