ভারতের ক্রিকেটার সামি সংখ্যালঘু মুসলিম বলেই, দল থেকে বাদ

স্পোর্টস ডেস্কঃ চার ম্যাচে মোট ১৪ উইকেট, তার মধ্যে একটি হ্যাটট্রিকও আছে। সুযোগ পেয়েই পরপর দুই ম্যাচে ৪টি করে উইকেট নেন। নিজের তৃতীয় ম্যাচে নিয়েছিলেন পাঁচ উইকেট। তারপরও মোহাম্মদ শামিকে বাদ দিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একাদশ সাজায় ভারত। ভারতের পেসারের এভাবে বাদ পড়াটা মানতে পারেননি অনেকেই।

এদিকে, এ বিষয়ে পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার মঈন খান বিতর্কিত এক মন্তব্য করে বসলেন। পাকিস্তানের সাবেক তারকা বলেছেন, মুসলিম বলেই একাদশ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল শামিকে। মুসলমানদের অগ্রযাত্রা থামাতেই ভারতের এই চক্রান্ত!

মঈন খান বলেন, ‘আমি (টিম ম্যানেজম্যান্ট হলে) শামিকে বাদ দিতাম না। যে বোলার মাত্র চার ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়েছে তাকে হঠাৎ করে আপনি বসিয়ে দিলেন। সে রেকর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। এই ম্যাচে (শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে) খেললে সে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর তালিকায় দুই অথবা তিনে চলে আসতে পারত। আমার মনে হয় শামিকে অন্য চাপে বাদ দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি, বিজেপির এজেন্ডা অনুযায়ী মুসলিমদের উন্নতি না করার জন্যই শামিকে বাদ দেওয়া হয়েছে।’

ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা শামি সেরা একাদশে সুযোগ পেয়েছেন অনেক পরে। শুরুর ম্যাচগুলোতে বেঞ্চে কাটিয়েছেন তিনি। মাঝে ভুবনেশ্বর কুমার ইনজুরিতে পড়লে আফগানিস্তানের ম্যাচে প্রথম সুযোগ পান। ৪০ রানে চার উইকেট তুলে নিয়ে সামর্থ্যের প্রমাণও দেন।
তার পরের ম্যাচে উইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ১৬ রানে নিয়েছিলেন চার উইকেট। তারপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। বাংলাদেশর বিপক্ষেই কেবল ভালো করতে পারেননি। একটা উইকেট পেলেও দিয়েছেন ৬৮ রান।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.