‘ভারতীয় সরকারের নিরাপত্তার নামে এ কোন ধরনের নাটকীয়তা ‘

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ কাশ্মীর ভারতীয় পুলিশের ওপর হামলার পর জম্মু-কাশ্মীরের হুররিয়াত নেতাদের নিরাপত্তা উঠিয়ে নিয়েছে ভারত সরকার। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

নিরাপত্তা ও পরিবহন সুবিধা বাতিল করার বিষয়ে জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের মুখপাত্র বলেছেন, ভারত সরকারের লোক দেখানো এমন নিরাপত্তা আমাদের প্রয়োজনও নেই। আমাদের নেতারা অনেক আগেই এসব সুবিধা তুলে নিতে বলেছিলেন। আমরা এসব সুবিধার জন্য কারও কাছে হাত বাড়াইনি।

!-- Composite Start -->
Loading...

ভয়েস অব আমেরিকার উর্দু ভার্সনের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ১৪ ফেব্রুয়ারি ভয়াবহ আত্মঘাতী হামলায় সিপিআরএফের কমপক্ষে ৪৯ সদস্য নিহত হওয়ার তিনদিন পর মোদি সরকারের তরফ থেকে এমন পদক্ষেপ নেয়া হলো।

মীর ওয়ায়েজ উমর ফারুক, আবদুল গানি ভাট, বিলাল লোন, হাসিম কুরেশি এবং সাবির শাহ এ পাচঁজন হুররিয়াত নেতার যাবতীয় রাষ্ট্রীয় সুবিধা বাতিল করা হয়েছে। কোনও অবস্থাতেই তাদের আর কোন নিরাপত্তা দেওয়া হবে না বলেও নির্দেশিকা জারি হয়েছে।

স্বাধীনতাকামী এ নেতাদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং পরিবহন সুবিধা তুলে নেয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, পাকিস্তান এবং দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের কাছ থেকে অর্থ সহযোগিতা পায় এমন লোকজনের নিরাপত্তার বিষয়টি অতি দ্রুত পর্যালোচনা করা হবে।

ইতিমধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের নেতা মীরওয়াইজ উমর ফারুকের নিরাপত্তা তুলে নেওয়া হয়েছে। তিনি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের যৌথ সংগঠন অল পার্টি হুররিয়ত কনফারেন্সের অন্যতম নেতা।

সূত্র: ভয়েস অব আমেরিকা ও দ্যা এক্সপ্রেস নিউজ

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.