ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলাঃ চার্জসিট স্বরাষ্টমন্ত্রণালয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যা মামলায় ৬ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট অনুমোদনের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। সোমবার সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, চার্জশিট অনুমোদনের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলে তা আদালতে দাখিল করা হবে। মামলার ১১ আসামির মধ্যে চার্জশিটে হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হল ওরফে সেনাবাহিনীর চাকরিচ্যুত মেজর জিয়াসহ মোট ৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অন্য আসামিরা হচ্ছেন- মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির, মো. মুকুল রানা ওরফে শরিফুল ইসলাম ওরফে হাদী, মো. আরাফাত রহমান, শফিউর রহমান ফারাবী।

!-- Composite Start -->
Loading...

এর আগে র‍্যাব ও পুলিশ এই মামলায় গ্রেপ্তার করেছে বেশ কয়েকজনকে। সবশেষ তদন্ত করে ঘটনার সঙ্গে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সামরিক শাখা আনসার আল ইসলামের ১১ জনের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে ৬ জনকে অভিযুক্ত করে সোমবার চার্জশিট দিলো পুলিশ।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি অমর একুশে বইমেলা থেকে বের হওয়ার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন ব্লগার অভিজিৎ রায়। ওই ঘটনায় গুরুতর আহত হন তার স্ত্রী রাফিদা আহমেদ। পরে শাহবাগ থানায় অভিজিতের বাবা অধ্যাপক ড. অজয় রায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

হত্যাকাণ্ডের কয়েকদিন পর আল-কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশ শাখার (একিউআইএস) ওই হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকারের খবর দেয় জঙ্গিগোষ্ঠীর ইন্টারনেট ভিত্তিক তৎপরতা নজরদারি করা ওয়েবসাইট ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ।’

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.