বুর্কিনা ফাসোর ক্ষমতা দখল করেছে সেনাবাহিনী

45


আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুর্কিনা ফাসোর ক্ষমতা দখল করেছে সেনাবাহিনী। রোববার দিনভর ব্যারাকে গোলাগুলির পর সোমবার এ ঘোষণা দিল দেশটির সামরিক বাহিনী।

সোমবার সন্ধ্যায় সেনাবাহিনীর লেফট্যানেন্ট কর্নেল পল-হেনরি সানদাওগো দামিবা স্বাক্ষরিত এক বিবৃতি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে পড়ে শোনান আরেক সেনা কর্মকর্তা। বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের সরকার ও পার্লামেন্ট বিলুপ্ত করে দেওয়া হয়েছে। প্রেসিডেন্ট রচ কাবারেকে পদচ্যুত এবং সংবিধান স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, কোনো সহিংসতা ছাড়াই ক্ষমতা দখল করেছে সামরিক বাহিনী। সামরিক বাহিনীর হাতে আটকরা নিরাপদ স্থানে রয়েছেন।

এর আগে রোববার রাতে দেশটির রাজধানী ওয়াগাদুগুতে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের চারপাশে ভারী গুলিবর্ষণের শব্দ শোনা যায় বলে দাবি করেছেন স্থানীয়রা। সোমবার সকালে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের কাছে তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বহরের বেশ কয়েকটি সাঁজোয়া যান বুলেটবিদ্ধ দেখা যায়। এর মধ্যে একটিতে রক্তের দাগ দেখা যায়। পরে জানা যায়, প্রেসিডেন্ট রচ কাবারেকে আটক করেছে সেনাবাহিনী।

রোববার দিনে বেশ কয়েকটি সেনা শিবিরে অবিরাম বন্দুকযুদ্ধের খবর প্রকাশ হওয়ার পর সেদেশে সামরিক অভ্যুত্থান চলছে বলে ধারণা করা হয়। তবে বুর্কিনা ফাসোর সরকার সামরিক অভ্যুত্থানের তথ্যকে গুজব বলে অস্বীকার করে। পরদিন সোমবার সন্ধ্যায় সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখলের ঘোষণা দিল।

গত কয়েক মাস ধরে পশ্চিম আফ্রিকার দেশটিতে ইসলামিক স্টেট ও আল কায়দা বহু বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করেছে। জঙ্গিবাদ দমনে বেসামরিক সরকার যথেষ্ট উদ্যোগ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করছে সামরিক বাহিনী। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আরও কার্যকর লড়াই করতে ক্ষমতা নিজের হাতে নিয়েছে বলে দাবি সেনাবাহিনীর।

রোববার বিদ্রোহী সেনাদের সমর্থন দিতে রাস্তায় নামেন বহু মানুষ। তারা প্রেসিডেন্ট রচ কাবারের রাজনৈতিক দলের কয়েকটি কার্যালয় ভাঙচুর করে। পরে রাত আটটার দিকে দেশে কারফিউ জারি করে সরকার।

আরও পড়ুন- বুর্কিনা ফাসোর প্রেসিডেন্টকে আটক করেছে বিদ্রোহী সেনারা

সারাবাংলা/আইই





Source link