বিশ্বের সবচেয়ে বড় অস্ত্র আমদানিকারক দেশ সৌদি

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে বিশ্বের সর্ববৃহৎ অস্ত্র আমদানিকারক দেশ হয়ে উঠেছে সৌদি আরব। স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের দেয়া সাম্প্রতিকতম প্রতিবেদন থেকে একথা জানা যায়।

কাতারের সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা সোমবার জানায়, ২০১৮ সালের তথ্য অনুযায়ী এসব অস্ত্রের বেশিরভাগই, প্রায় ৮৮ শতাংশ, সৌদি আরবকে বিক্রি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের মোট রপ্তানিকৃত অস্ত্রের ২২ শতাংশ কিনেছে সৌদি আরব । ২০০৯ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে সৌদি যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্রের মাত্র ৪.৯ শতাংশ কিনত।

এসব অস্ত্রের মধ্যে সাঁজোয়া যান, নিয়ন্ত্রিত ক্ষেপণাস্ত্র, বিমান, কামান এবং জাহাজের মতো বিভিন্ন ভারি অস্ত্রশস্ত্র রয়েছে।
২০১৪ থেকে ২০১৮’র মধ্যে সৌদি যুক্তরাষ্ট্রের ৫৬টি এবং ব্রিটেনের ৩৮টি যুদ্ধবিমান কিনেছে। এই দুই ক্ষেত্রেই যুদ্ধবিমানগুলো ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র অন্যান্য নিয়ন্ত্রিত অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিল।

২০১৯-২০২৩ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে সৌদিতে আরও ৯৮টি সামরিক উড়োজাহাজ, সাতটি ক্ষেপণাস্ত্র সুরক্ষা ব্যবস্থা এবং ৮৩টি ট্যাঙ্ক পাঠানোর কথা রয়েছে। এই সময়ে সৌদিতে কানাডা পাঠাবে ৭৩৭টি সাঁজোয়া যান, স্পেন পাঠাবে পাঁচটি যুদ্ধজাহাজ, ইউক্রেন পাঠাবে স্বল্প পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র, বলা হয় সিপ্রির প্রতিবেদনে।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যে অস্ত্র রপ্তানির হার ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, গত পাঁচ বছরে এই হার প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।
২০১৪-২০১৮ সালে বিশ্বের সর্ববৃহৎ অস্ত্র আমদানিকারক ১০টি দেশের মধ্যে পাঁচটিই মধ্যপ্রাচ্যে। ওই অঞ্চলে পাঠানো অস্ত্রের ৩৩% গেছে সৌদি আরবে, ১৫% গেছে মিশরে, ১১% গেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে এবং ১১% গেছে ইরাকে।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.