বিদ্যুৎ উৎসব আনন্দে ভাসছে রাঙ্গাবালী উপজেলাবাসী

84


সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :: রাঙ্গাবালী বাসীর অকল্পনীয় প্রত্যাশা আর স্বপ্ন পুরনের  আলোকিত শহর বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী উপজেলা। উপজেলার ৪ শত ৭২ বর্গ কিলো মিটারের ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ৬’শত ৭২ জনের ঘরে শতভাগ বিদ্যুৎতায়নের মাধ্যমে ভাগ্যের পরিবর্তনে দ্বীপঅঞ্চল বাসীদের জীবন উন্নয়নে বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানে উপকূলীয় জনসাধারনের জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

প্রায় ৪০০ জনের “আলোর ফেরিওয়ালা” বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে সমগ্র রাঙ্গাবালী উপজেলাকে আলোকিত করার জন্য নিরালস পরিশ্রমের সফলতায় মঙ্গলবার (৩১-আগস্ট-২০২১ ইং) তারিখ সন্ধ্যায় (৩৩/১১) কেভি উপকেন্দ্র কোন সমস্যা ছাড়াই পরীক্ষা মূলক ভাবে চালু করা হয়।আগামী ১২সেপ্টেম্বর রাঙ্গাবালী উপজেলাকে বিদ্যুৎ এর আলোয় আলোকিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি হতে আগত ১২০ জন লাইন ক্রু ও জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার বৃন্দরা আলোর ফেরিওয়ালা” হিসাবে ” ১২কিঃমিঃ আগুনমুখা নদী পাড়ি দিয়ে রাঙ্গাবালী উপজেলার যাত্রা শুরু করেছেন।

এছাড়া তারা বিভিন্ন উপদলে বিভক্ত হয়ে রাঙ্গাবালী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামের লাইন চালুর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন এবং পুরো এলাকা একসাথে বিদ্যুতায়িত করেই ঘরে ফিরবেন বলেই আলোর ফেরিওয়ালাদের পবিত্র অঙ্গিকার করেন।

জাতীয় সংসদ সদস্য পটুয়াখালী-৪-আসনের মহিবুর রহমান ( এমপি), রাঙ্গাবালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ মোঃ জহিরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাশফাকুর রহমান, চেয়ারম্যান মামুন খাঁন এর অক্লান্ত প্রচেষ্টায় এবং ছোট বাইশদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এ বি এম আব্দুল মান্নান এর ষাট শতাংশ জমি বিনা মূল্যে দানের কারনে বিদ্যুৎ সাবস্টেশন উপকেন্দ্রটি নির্মান হয়।এনিয়ে রাঙ্গাবালী উপজেলা বাসী প্রায় ১ লক্ষ ৪৮ হাজার মানুষের চোখে মুখে স্বপ্ন পুরনের হাসি ফুটে উঠেছে। বিদ্যুৎ উৎসবের আনন্দে ভাসছে রাঙ্গাবালী উপজেলা বাসী।

Print Friendly, PDF & Email



Source link