বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি আগুনের মধ্যে ঘি ঢালার ব্যবস্থা : বাংলাদেশ ন্যাপ

0
216

হঠাৎ করে আবারো বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির সরকারি ঘোষণাকে জনস্বার্থ বিরোধী হিসাবে আখ্যায়িত করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

তারা বলেন, বিদ্যুৎ খাতকে দুর্নীতিমুক্ত করলে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রয়োজন হতো না। বিদ্যুৎখাতে দুর্নীতি চরমভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। অথচ সরকার সেই দুর্নীতি বন্ধ না করে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির মাধ্যমে দুর্নীতিবাজদের পক্ষে ও জনগনের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহন করলো।

বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষনা দেয়ার পর গণমাধ্যমে প্রেরিত এক তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় দলের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এসব কথা বলেন।

নেতৃদ্বয় বলেন, নিয়োগ, ক্রয়, উৎপাদন, সঞ্চালন ও সেবাখাতে চরম দুর্নীতি বিরাজ করছে। গণমাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে আমরা জেনেছি গত ১২ বছরে বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রেন্টাল, কুইক রেন্টাল কোনো প্রকার বিদ্যুৎ সরবরাহ না করেও ৫৩ হাজার কোটি টাকা পিডিপির কাছ থেকে নিয়েছে। জনগণের কাছে এভাবে অর্থ আদায় করে অনৈতিকভাবে কতিপয় ব্যক্তিকে সুবিধা দেয়া কাম্য নয়।

নেতৃদ্বয় বলেন, বর্তমানে জীবনযাত্রার ব্যয় সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্বেই আজ জীবনযাত্রার ব্যয় কমানোর দাবিতে আন্দোলন সংগ্রাম চলছে। আমাদের দেশে বাজার ব্যবস্থা লাগামহীন। এর মধ্যে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির মাধ্যমে সরকার আগুনের মধ্যে ঘি ঢালার ব্যবস্থা করলো। বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির এ ঘোষণা বর্তমান সময়ে যথাপযুক্ত নয়।

ন্যাপ নেতৃদ্বয় আরো বলেন, দুর্নীতি ও ভুল নীতিতে লাগামহীন বিদ্যুৎখাত। দুর্নীতি উচ্ছেদে কোনো পদক্ষেপ নেই। অথচ অযৌক্তিকভাবে দফায় দফায় দাম বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের সরঞ্জাম, বিদ্যুৎ উৎপাদন সব ক্ষেত্রেই দুর্নীতি চলমান। এই দুর্নীতি রোধ করতে পারলে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির কোন প্রয়োজন হতো না।

নেতৃদ্বয় বলেন, জনগণের অবস্থার কথা বিবেচনা করে বিদ্যুতে মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল করা হোক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে