বিজনেস এক্সপার্ট লার্নিং ক্লাব – ইএলসি এর প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ১ মাস পূর্তি

125


গত ৩১ অক্টোবর উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের এক মাস পূর্তি উপলক্ষে ই-বিজনেস এক্সপার্ট লার্নিং ক্লাব – ইএলসি এর পক্ষ থেকে মিটআপের আয়োজন করা হয়। আয়োজিত মিটআপে উপস্থিত ছিলেন ই-বিজনেস এক্সপার্ট লার্নিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ন্যায়না নাঈমা এবং স্বপ্নীল মোত্তাফি বিল্লাহ।

মিটআপের আলোচনায় ইএলসি এর প্রতিষ্ঠাতা ন্যায়না নাঈমা বলেন “ উদ্যোক্তাদের নিয়ে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি প্রপার নলেজের অভাবে অনেকেই সঠিকভাবে বিজনেস পরিচালনা না করতে পেরে ঝরে পরছে। তাই আমরা নারী উদ্যোক্তাদের টেকনিক্যাল এবং বিজনেস ডেভেলপমেন্টের লক্ষ্যে ফ্রী প্রশিক্ষণ কার্যক্রম প্রদান করছি, যার ইতিমধ্যে ৩১ দিন অতিবাহিত হয়েছে। এবং আমাদের নিকট ভবিষ্যতের পরিকল্পনা রয়েছে এই ক্লাবের নারী উদ্যোক্তাদের প্রোডাক্ট ডেলিভারি সিস্টেম, প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি এবং আউটলেট সমস্যার সমাধাণ করা।“

এছাড়াও সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্বপ্নীল মোত্তাফি বিল্লাহ বলেন, “ আমরা এতো অল্প সময়ে নারী উদ্যোক্তাদের মাঝে যে পরিবর্তন আনতে পেরেছি তা সত্যিই আশাব্যাঞ্জক, আমরা আশা করছি পুরো বাংলাদেশে নতুন উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে নলেজ গ্যাপ দূর করা, তাদের নিজেদের মধ্যে নেটওয়ার্কিং বাড়ানো এবং তাদের বিভিন্ন সমস্যার বাস্তব সম্মত সমাধাণের মাধ্যমে তাদের এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো।

এছাড়াও এক মাস পূর্তী আয়োজনে ফটোগ্রাফি পার্টনার হিসেবে ছিলো কে এম এ তাহের ফটোগ্রাফি এন্ড সিনেমাটোগ্রাফি। কে এম এ তাহের ফটোগ্রাফি এন্ড সিনেমাটোগ্রাফি এর প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম এ তাহের বলেন, “ই-বিজনেস এক্সপার্ট লার্নিং ক্লাবের সাথে যুক্ত হয়ে কে এম এ তাহের ফটোগ্রাফি এন্ড সিনেমাটোগ্রাফি নির্দিষ্ট কিছু সংখ্যক উদ্যোক্তাকে ফ্রী ফটোগ্রাফি সার্ভিস প্রদান করবে।”

ডিজিটাল উদ্যোক্তাদের ব্যাবসা পরিচালনার জন্য সম্পূর্ন হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদান, উদ্যোক্তাদের নিজেদের মধ্যে নেটওয়ার্কিং বাড়ানো এবং তাদের বিভিন্ন ব্যাবসায়িক সমস্যার সমাধানের লক্ষ্য নিয়ে ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ যাত্রা শুরু করে ই-বিজনেস এক্সপার্ট লার্নিং ক্লাব – ইএলসি। বিগত এক মাসে এই ক্লাবে প্রায় আড়াই হাজার উদ্যোক্তা সংযুক্ত হোন, যাদের মধ্যে শতকরা ৯০ ভাগই নারী উদ্যোক্তা।

মূলত নারী উদ্যোক্তাদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ক্লাবের পক্ষ থেকে ৬৫ দিন ব্যাপি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ কর্মসূচী শুরু করা, যার ইতিমধ্যে ৩১ দিন অতিবাহিত হয়েছে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচী টিম ভিত্তিক পরিচালনা করা হয়। বর্তমানে “টিম অপরাজিতার” প্রশিক্ষণ কর্মসূচী চলছে।



Source link