বাংলাদেশ কখনও শ্রীলংকা হবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী

50


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, শ্রীলংকা, শ্রীলংকা বলে যারা চিৎকার করছে তাদের বলছি, বাংলাদেশ কখনও শ্রীলংকা হবে না। হওয়ার আশঙ্কাও নেই।

শনিবার (১৪ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস ফেডারেশন উদ্যোগে আয়োজিত ‘শ্রমিকদের জন্য কেমন বাজেট চাই’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘অর্থনীতির যত ধরনের পরিসংখ্যান প্রয়োজন সবকিছু আপনাদের সামনে দেওয়া হবে। আপনারা তথ্য–উপাত্ত বিচার বিশ্লেষণ করে দেখান যে আমাদের ঘাটতি কোথায়? কোন দিক থেকে শ্রীলংকার চেয়ে পিছিয়ে আছি।’

তিনি বলেন, ‘শ্রীলংকাকে যদি মালা দিয়ে এখানে (বাংলাদেশে) আনা হয়। সেটা অন্য বিষয়। তবে তা বাংলার মানুষের স্বার্থে হবে না।’

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি করবেন না। সেটা তৈরি হলে সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবো।’ বাংলাদেশকে একটি স্থিতিশীল দেশ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে এই অঞ্চলের অন্যান্য দেশ যেমন নেপাল, মিয়ানমার, শ্রীলংকা এবং মালেয়শিয়াসহ অনেক দেশের তুলনায় আমরা স্থিতিশীল অবস্থায় আছি। কিছুতেই এ স্থিতিশীলতাকে ব্যহত করতে দেওয়া হবে না।’

তিনি বলেন, ‘এটা ঠিক যে, যেভাবে আমাদের উৎপাদন বাড়ছে, রফতানি বাড়ছে, জিডিপির প্রবৃদ্ধি হচ্ছে, সে অনুযায়ী শ্রমিকরা কতটুক সুফল পাচ্ছেন তা নিয়ে আমি সন্দিহান। তবে আমি ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বাস করি, শ্রমিকদের পুরো পাওনা দেওয়া হচ্ছে না। শ্রমিকদের প্রাপ্য যাতে আরেকটু ন্যায্য ও হকভিত্তিক করা যায় সেটা আমরা চেষ্টা করব।’

স্বাস্থ্যখাতে দেশের অনেক বড় অর্জন হয়েছে রয়েছে উল্লেখ করে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘১২১টি দেশের মধ্যে আমরা পঞ্চম স্থানে রয়েছি। কোভিড ম্যানেজমেন্টে বাংলাদেশের অর্জন অনেক বড়। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য উন্নত দেশ হয়েও ওই সব দেশ কোভিড মোকাবিলায় হিমশিম খেয়েছে। কোভিড নিয়ন্ত্রণে এ অঞ্চলের আটটি দেশের মধ্যে আমরা প্রথম হয়েছি। ভারত, পাকিস্তান আমাদের কাছেও নেই।’

বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস ফেডারেশন সভাপতি মাহবুবুর রহমান ইসমাইলের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) কার্যকরী সভাপতি মো. হাতেম, সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) পরিচালক গোলাম মোয়াজ্জেম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সাবেক সভাপতি আবু জাফর সূর্য প্রমুখ।

সারাবাংলা/জিএস/পিটিএম





Source link