ফেসবুক স্ট্যাটাস, ফেজের লিখিত গুজবে কান দিবেন না, হিন্দু ও গণমাধ্যমদের উদ্দেশ্যে পুলিশ সুপার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ‘শারদীয় দুর্গাপূজাকে কাজ মনে করি না এটা আমাদেরও একটা উৎসব। আর তাই আমাদের উৎসবে নিছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’

শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষে ১৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এসপি হারুন অর রশিদ বলেন, আশা করছি লাঙ্গলবন্দের পূণ্যস্নান, বারদীতে লোকনাথ ব্রহ্মচারীর উৎসব ও শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর মতোই কোন প্রকার অপ্রীতিকর ও বিশৃঙ্খলা ছাড়া উৎসবমুখর পরিবেশে দুর্গাপূজা পালিত হবে। ধর্ম যার যার, উৎসব সবার এ স্লোগানে বিশ্বাস রেখে সকল ধর্মের মানুষ যাতে সমান ভাবে দুর্গোৎসবের আনন্দ ভাগ করে নিতে পারে সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, প্রতিটি থানার ওসিকে বলা হয়েছে নিজ নিজ এলাকার পূজামন্ডপগুলোতে গিয়ে সার্বিক পরিস্থিতির খোঁজ খবর নিতে হবে। প্রয়োজনে পূজা পরিষদের নেতাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে সমস্যা সমাধান করতে হবে। এজন্য প্রতিটি থানায় বিশেষ মিডিয়া সেল খোলা থাকবে।

এসপি বলেন, প্রতিটি মন্ডপে সিসিটিভি ক্যামেরা, নিজের স্বেচ্ছাসেবক, তাদের পরিচয় পত্র সহ শনাক্ত করার জন্য টিশার্ট থাকতে হবে। এছাড়াও পুলিশের পক্ষ থেকে মোটরসাইকেল টিম থাকবে, পুলিশের টহল টিম থাকবে, সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ, মন্ডপে মন্ডপে পুলিশ, আনসার থাকবে। কোথাও কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা নেই। তবে একটি কুচক্রি মহল দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে নানা প্রকার উস্কানীমূলক তৎপরতা চালাতে পারে। ফেসবুক, ফেইজে বিভিন্ন পোস্ট দিতে পারে। প্রশাসনের নামে বিভিন্ন পেইজ খুলে এসব অপরাধ ছাড়াতে পারে। গণমাধ্যমদের উচিত বিশ্লেষণ করা, যাচাই করা। কিছু গণমাধ্যম এসব পেইজ বা পোস্টের আশ্রয় নিয়ে নিউজ করে দেশকে প্রশ্নবিদ্ধ ও খাটো করছে। এ ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। কোন প্রকার গুজবে কান দিবেন না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উস্কানীমূলক কোন প্রকার প্রচারণা থেকে বিরত থাকবেন। কোন প্রকার সমস্যা সৃষ্টি হলে সঙ্গে সঙ্গে থানায় যোগাযোগ করতে হবে। এছাড়াও পুলিশের কন্ট্রোল রুমে জানাতে হবে।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.