ফের সংখ্যালঘুদের পাকিস্তানের অত্যাচার, ধর্মান্তরিত শিখ বালিকা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে মদত, অর্থনৈতিক বিপর্যয় সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে এমনিতেই কোণঠাসা হয়ে রয়েছে পাকিস্তান সরকার, তার সঙ্গে যোগ হল নতুন অধ্যায়। এক শিখ বালিকাকে জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করার অভিযোগ আসার ফলে এবার বড়সড় প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়েছে ইমরান খান সরকার।

ওই বালিকার পরিবার সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও আপলোড করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছে তাদের মেয়েকে উদ্ধার করে দেওয়ার জন্য। এমনিতেই পাকিস্তানে শিখ সংখ্যালঘু হিসেবে পরিচিত এবং সেখানে জোর করে অন্য ধর্মের মানুষকে জোর করে ইসলাম ধর্ম নিতে বাধ্য করার অভিযোগ নতুন নয়। আবারও এই অভিযোগ ওঠার কারনে নিরাপত্তা নিয়ে বড়সড় প্রশ্নের মুখে পাক সরকার।

!-- Composite Start -->
Loading...

সাংসদ মাঞ্জিন্দার এস সিরসা তার টুইটার থেকে ভিডিও টি শেয়ার করেছেন যেখানে দেখানো হচ্ছে মেয়েটিকে জোর করা হচ্ছে অন্যথায় তার বাবা ও ভাইকে গুলি করা হবে বলেও ভয় দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

আমার ছোট বোন জগজিত কৌরকে জোর করে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার অন্য এক ভাই মনমোহন সিং। তিনি জানিয়েছে ধর্ম পরিবর্তন না করলে পরিবারকে মেরে ফেলা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আমরা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করছি এই বিষয় নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪।

এছাড়াও তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করকেও এই বিষয় নিয়ে টুইট করেছেন এবং পাকিস্তানে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষদের জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করানোর বিষয়টি জাতিসঙ্ঘে জানানোর জন্য আবেদন করেছেন। সংবাদমাধ্যমের তরফে জানানো হয়েছে, জগজিতের বাবা একটি গুরুদোয়ারার গুরু। সাধারন কিছু পাকিস্তানী গুন্ডা তার মেয়েকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁর ধর্ম পরিবর্তন করিয়েছে।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.