প্রতিবন্ধীকে বেঁধে মুখে-বুকে লাথি, ভিডিও ভাইরাল

চোর সন্দেহে দড়ি দিয়ে বেঁধে মুখে ও বুকে লাথি মেরে দীপংকর ভদ্র নামে এক প্রতিবন্ধী যুবককে নির্মম নির্যাতন করেছে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার কয়েকজন স্থানীয়। গতকাল সোমবার বাঘারপাড়ার খাজুরার ভদ্রডাঙ্গা ছব্বারের মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দীপংকর ভদ্রকে নির্যাতনের ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

!-- Composite Start -->
Loading...

দীপংকর ভদ্র ঝিকরগাছা উপজেলার ছুটিপুর গ্রামের গোপাল ভদ্রের ছেলে। তাকে নির্যাতন করেছেন উপজেলার ভদ্রডাঙ্গা গ্রামের অহেদ খানের ছেলে আলমগীর, বনগ্রাম মুন্সীপাড়ার কিয়ামের ছেলে নাজমুল ও ভদ্রডাঙ্গা গ্রামের ইকবাল কারীর ছেলে ইলিয়াছ।

ভিডিওতে দেখা গেছে, আলমগীর, নাজমুল ও ইলিয়াছ দড়ি দিয়ে বেঁধে মুখে ও বুকে লাথি মেরে নির্যাতন করছেন প্রতিবন্ধী দীপংকর ভদ্রকে। তাকে মাটিতে ফেলে টানাহেঁচড়া করা হচ্ছে। আশপাশের লোকজন তাদের থামতে বললেও কারও কথা শোনেনি তারা।

এ ঘটনায় জড়িত কাউকে শনাক্ত কিংবা আটক করতে পারেনি পুলিশ।

জানা গেছে, সোমবার সকালে দীপংকার ভদ্র খাজুরা বাজারসংলগ্ন তেলীধান্যপুড়া গ্রামে তার খালাতো ভাই হারানের বাড়িতে যায়। বিকেলে খালাতো ভাইয়ের সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয় দীপংকার। ছব্বারের মোড়ে পৌঁছালে স্থানীয় ভদ্রডাঙ্গা গ্রামের আলমগীর, নাজমুল ও ইলিয়াছ তার গতিরোধ করে পরিচয় জানতে চায়। একপর্যায়ে চোর সন্দেহে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে এবং অমানবিক নির্যাতন চালায়।

বাঘারপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন এ ব্যাপারে বলেন, ওই যুবককে নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে দেখেছি আমি। ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম আমি। কিন্তু অভিযুক্ত কাউকে শনাক্ত করা যায়নি। এ ঘটনায় কেউ অভিযোগও দেয়নি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মতামত দিন

Post Author: bdnewstimes