প্রচুর অর্থ দিয়েও মিলছেনা বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচের টিকিট

স্পোর্টস ডেস্কঃ ২০০৭ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে ভারতের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। প্রথম দেখাতেই ভারতীয়দের বিপক্ষে বাজিমাত করে হাবিবুল বাশারের দল। প্রথম সাক্ষাতেই পরাশক্তি ভারতকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

এরপরের দুই বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে মাঠের লড়াইয়ে জয় পাওয়া হয়নি সাকিব আল হাসান-মাশরাফি বিন মুর্তজাদের। চতুর্থবারের মতো বিশ্বকাপের মঞ্চে আগামী ২ জুলাই মঙ্গলবার মুখোমুখি হবে প্রতিবেশী দুই দেশ।

এখন অবধি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ম্যাচগুলোতে গ্যালারি পরিপূর্ণ ছিল বাংলাদেশের সমর্থকে। দুই দলের মধ্যে বাংলাদেশের সমর্থকের উপস্থিতিই ছিল বেশি। তবে এমন দৃশ্য দেখা যাবে না বার্মিংহামের এজবাস্টনে।

এদিন বিশ্বকাপের অন্যতম দাবীদার ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডে প্রচুর বাংলাদেশি প্রবাসী বসবাস করলেও এজবাস্টনে প্রবাসীদের বিচারে ভারতেরই আধিপত্য। আর এ কারণে বাংলাদেশি সমর্থকরা পিছিয়ে পড়েছেন টিকিট ক্রয়ের দিক থেকে।

এই ম্যাচেরও টিকিট ভাগ করা হয়েছে মোট চারটি ক্যাটাগরিতে- ব্রোঞ্জ (৪০ পাউন্ড), সিলভার (৬০ পাউন্ড), গোল্ড (৯৫ পাউন্ড) ও প্লাটিনাম (১২৫ পাউন্ড)। আইসিসির ওয়েবসাইটে এখন প্লাটিনাম ছাড়া অন্য কোনো ক্যাটাগরির টিকিট নেই, অর্থাৎ স্বল্পমূল্যের দিক থেকে তিন ক্যাটাগরির টিকিটই বিক্রি হয়ে গেছে। কালোবাজারিদের কাছে পাওয়া যাচ্ছে অপেক্ষাকৃত স্বল্প মূল্যের টিকিটগুলো, তবে সেগুলোর জন্য গুনতে হচ্ছে প্লাটিনাম ক্যাটাগরির মতই চড়া দাম!

টিকিটের জন্য হন্যে হয়ে ঘুরা বাংলাদেশিরা সমর্থকরা জানিয়েছেন, এজবাস্টনের হাই ভোল্টেজ ম্যাচটির ব্রোঞ্জ ক্যাটাগরির একেকটি টিকিটের মূল্যই চাওয়া হচ্ছে ১৫০ পাউন্ড পর্যন্ত। এতে অনেকে বিসর্জন দিচ্ছেন মাঠে বসে টাইগারদের সমর্থন জোগানোর ইচ্ছা। কেউ কেউ আবার এই চড়া মূল্য পরিশোধে সম্মত হলেও তাকে ছুটতে হচ্ছে টিকিটের খোঁজে!

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.