পৃথিবীর ১ম বিলিয়নেয়ার মহাকাশযাত্রী!!

188


ব্রিটিশ উদ্যোক্তা এবং বিলিয়নেয়ার রিচার্ড ব্র‍্যানসন গত ১৩ জুলাই এর সকালে নিজের টাকায় তৈরিকৃত রকেটে মহাকাশ ভ্রমণ করেন। তিনি এবং তার সাথে থাকা তিন জন সহযাত্রী মেক্সিকোর মাটি থেকে এ যাত্রা শুরু করেন বলে জানা যায়।

ভার্জিন  গ্যালাকটিক, রিচার্ড ব্র‍্যানসনের নিজস্ব স্পেসক্রাফট কোম্পানি এ যাত্রাকে সফল করেছে। ২০০৪ সালে স্যার রিচার্ড ব্র‍্যানসন ঘোষণা করেন তার এ স্বপ্নের কথা। যেখানে তিনি সাধারণ মানুষকে মহাকাশ দেখাতে পারবেন। স্পেস টুরিজমের এ আইডিয়াটি বাস্তবায়ন করার কথা ছিলো মাত্র ৩ বছর, অর্থাৎ ২০০৭ সাথে। কিন্তু মাঝখানে এসে পড়ে কিছু বাধা বিপত্তি। এর মধ্যে অন্যতম হলো ২০১৪ সালের একটি রকেট ক্র‍্যাশ। কিন্তু ১৭ বছরের পরিশ্রমের পর শুধু মাত্র ৪ বার টেস্ট করেই ৫ম বারে রকেটটি ৬ জন মানুষ নিয়ে মহাকাশ ভ্রমণ করাতে সক্ষম হয়।

দুইজন পাইলট এবং ব্র‍্যানসন সহ আরো ৩জন অভিযাত্রী হলেন ভার্জিন গ্যালাকটিকের ৩জন কর্মচারী- বেথ মোজেস, কলিন বেনেট এবং সিরিশা ব্যান্ডলা। যাত্রাটির সফলতার পর সাবেক স্পেস স্টেশন কমান্ডার এবং কানাডিয়ান অ্যাস্ট্রোনট ক্রিস হ্যাডফিল্ড এই ৪জনের জুটিকে কমার্শিয়াল অ্যাস্ট্রোনট উইংস প্রদান করেন। 

পৃথিবীর ১ম বিলিয়নেয়ার মহাকাশযাত্রী!!

পৃথিবীর ১ম বিলিয়নেয়ার মহাকাশযাত্রী!!

তিনি ব্রিটিশ নিউজ মিডিয়া কে জানান, রকেটে বসে ছিলেন তিনি হাতে একটি কলম এবং নোটপ্যাড নিয়ে। তিনি ৩০ থেকে ৪০টি ছোট ছোট ব্যাপার নোট করেছেন যা আরেকটু উন্নত করার মাধ্যমে তিনি তার স্পেস যাত্রীদের ভালো একটি ভ্রমণ অভিজ্ঞতা দিতে পারবেন। ভেতরের কিছু ছবি ইতোমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে ইন্টারনেট জগতে যেখানে একজন হাস্যোময় ৭১ বছরের বিলিয়নেয়ার কে দেখা যাচ্ছে। রকেটটি মেক্সিকোর মাটিতে ল্যান্ড করার পর ই একটি “সাক্সেস পার্টি”র ব্যাবস্থা করা হয় যেখানে আমেরিকান গায়ক খালিদ এর গান গাওয়ার গুঞ্জনটিও শোনা যায়।

স্পেস রকেটটি মহাকাশে প্রায় ১ ঘন্টা উপস্থিত থাকে। আরো জানা যায় যে, স্যার রিচার্ড ব্র‍্যানসনের এ রকেটটি মাটি থেকে ৮৫ কি.মি উপরে ভ্রমণ করে। যাত্রীদের ভাষ্যমতে, চোখের পলকেই সাদা মেঘযুক্ত আকাশ থেকে কালো মহাকাশ দেখতে পান তারা যা ছিলো অবিশ্বাস্য। পৃথিবীর ইতিহাসে সর্ব প্রথম বিলিয়নেয়ার যিনি নিজের ফান্ডে তৈরি রকেটে মহাকাশ ভ্রমণ করেন। ব্যাপারটিতে ল্যান্ডিং এর পর অনেকেই সাধুবাদ জানান তাকে যার মধ্যে অন্যতম হলো বন্ধু এবং প্রতিদ্বন্দ্বী, স্পেসএক্স এর ফাউন্ডার এবং পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বিলিয়নেয়ার জেফ বেজোস। 

এটি কারো কাছে নতুন খবর নয় যে, জেফ বেজোস চলতি বছরে নিজের স্পেস রকেটে মহাকাশ যাত্রার একটি টেস্ট ড্রাইভের ঘোষণা দিয়েছিলেন। এরই সাথে তার দেয়া ভ্রমণ তারিখের ঠিক ৯ দিন আগে স্যার রিচার্ড এর এই স্টেপটি সাধারণ মানুষের মধ্যে একধরণের উৎকণ্ঠা তৈরি করেছে। নিকট ভবিষ্যতে বিমান যাত্রার মতোই মহাকাশ যাত্রাও হতে পারে “দা নেক্সট বিগ থিং”!

ইতোমধ্যে, ভার্জিন গ্যালাকটিকের মহাকাশ ভ্রমণের জন্য ৬০০টি টিকেট বিক্রি হয়ে গেছে। এখানে, প্রতি টিকেটের দাম ধারণা করা হচ্ছে ২০০০০০ থেকে ২৫০০০০ মার্কিন ডলার। স্যার রিচার্ড ব্র‍্যানসন আগামী বছর থেকে স্পেস টুরিজমের এ যাত্রা শুরু করার ঘোষণা দিয়েছেন। 

 

সাবিকুন্নাহার আফরা

ইন্টার্ন, কন্টেন্ট রাইটিং ডিপার্টমেন্ট

YSSE



Source link