পাপনের সঙ্গে যে আলোচনা হলো সাবেক ৫ অধিনায়কের

0
111

ঢাকা, ১৭ ফেব্রুয়ারি – সাবেক পাঁচ অধিনায়ককে বাসায় ডেকেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এ পাঁচ সাবেক অধিনায়ক হলেন- আকরাম খান, নাইমুর রহমান দুর্জয়, খালেদ মাহমুদ সুজন, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমন।

আজ বুধবার বিকেলে পাপনের গুলশানের বাসায় যাওয়া এ পাঁচ সাবেক অধিনায়কের প্রথম তিনজন বিসিবির পরিচালক, শেষ দুজন নির্বাচক। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন দীর্ঘক্ষণ তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট বিষয়ে।

বোর্ড সভাপতি ডেকে নিয়ে পাঁচ সাবেক অধিনায়ককে গুরুত্বপূর্ণ কোনো বার্তা দিলেন কিনা, সে প্রশ্নে নাইমুর রহমান দুর্জয় বলেন ‘নাহ। বিসিবি সভাপতি কোনো বার্তা দেননি। বরং সবার কথা মন দিয়ে শুনেছেন। বার্তা তো আমাদের কাছে যাবে না। বার্তা তো আমরা দেবো। সামনে আরও সিরিজ আছে। সেগুলোতে আমাদের বোর্ডের পলিসি কি হবে, এগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিন্তু কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো কিছু হয়নি।’

আরও পড়ুন : প্রথম ধাপে ৩২৩ ইউনিয়ন পরিষদে ভোট ১১ এপ্রিল

তিনি জানিয়েছেন,ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে জাতীয় দলের পারফরম্যান্স নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। সেখানে সবাই যার যার মত দিয়েছেন। দুর্জয়ের কথা, ‘এটা আলোচনায় আসছে, আসাটাই স্বাভাবিক। কার চোখে কী ধরা পড়েছে, কার মাথায় কি এসেছে, কি করলে ভালো হতো। আরও ভালো উন্নতি করতে পারতাম। এ ধরনের আলোচনা হয়েছে। স্বাভাবিকভাবে আপনারাও করেন এই ধরনের আলোচনা।’

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল নিয়ে বড় কোনো সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘দলের ব্যাপারটা আসলে নির্বাচকরা বলতে পারবেন। সামনে যেহেতু আরেকটা সিরিজ আছে, সেক্ষেত্রে আমার মনে হয় যে পরিবর্তনের যেসব কথা বলছেন, সেরকম কিছু মনে হয়নি। বোর্ড প্রধান বরং পরিবর্তন না করে আমরা কীভাবে এখান থেকে উত্তরণ করতে পারি সেটি নিয়ে কথা বলেছেন। সবার মাথা থেকে, সবার আইডিয়া থেকে শেয়ার করা হয়েছে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টের প্রস্তুতির জন্য দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট জরুরি ছিল বলে মনে করেন বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক।তিনি জানান, দীর্ঘ পরিসরের দু-একটা ম্যাচ আয়োজন করার ছিলি বিসিবির। কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি।

এ প্রসঙ্গে দুর্জয় বলেন, ‘আমরা এটাও জানি যে, এখন পরিস্থিতিটাও স্বাভাবিক না কোভিডের কারণে। বায়ো-বাবল যেন লম্বা না হয়, সে কারণে টিম ম্যানেজমেন্ট চাচ্ছিল না এতটা দিন বায়ো-বাবল সিকিউরিটির মাঝে থাকি। আলটিমেটলি সেখানে তো প্রস্তুতির ঘাটতিটা তো রয়েই গেল। সেই জিনিসগুলো সামনে আরও গভীরভাবে চিন্তা করা যায় কি না, তা নিয়েও কথা হয়েছে।’

সূত্র : আমাদের সময়
এন এ/ ১৬ ফেব্রুয়ারি

Source link