পাঞ্জশির ৬০০ তালেবান নিহত, আটক সহস্রাধিক

71


আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় পাঞ্জশির উপত্যকায় তালেবান ও বিদ্রোহী ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে। এনআরএফের মুখপাত্র ফাহিম দাস্তি এক টুইটে দাবি করেছেন, সেখানে প্রায় ৬০০ তালেবান নিহত হয়েছেন। এছাড়া সহস্রাধিক তালেবান সদস্য আটক হয়েছেন। এরমধ্যে অনেকেই আত্মসমর্পণ করেছেন।

ফাহিম দাস্তি আরও জানান, আফগানিস্তানের অন্যান্য প্রদেশ থেকে রসদ পাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছে তালেবান যোদ্ধারা।

এদিকে গত শুক্রবার পাঞ্জশির উপত্যকা দখলের দাবি করেছিল তালেবান। কিন্তু আল–জাজিরার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, পাঞ্জশিরের দখল নিতে লড়াই অব্যাহত আছে। তবে তালেবানের আক্রমণের গতি অনেকটা কমে গেছে। এলাকাটির সড়কে ভূমি মাইন রয়েছে।

আরও পড়ুন:

তালেবানের বিজয়োল্লাসে ১৭ মৃত্যু

আফগানিস্তানে সরকার গঠন প্রক্রিয়া স্থগিত

এর আগে গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা দখল করে তালেবান যোদ্ধারা। পরদিন সোমবার যুদ্ধ শেষ হওয়ার ঘোষণা দেয় তালেবান। দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি গোপনে দেশ ত্যাগ করেন।

তালেবানের হাতে কাবুল পতনের পর স্থানীয় নেতা আহমেদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন মিলিশিয়াদের সঙ্গে আফগান সামরিক বাহিনীর কমান্ডারদের একাংশ মিলে পাঞ্জশির উপত্যকায় গড়ে তোলা হয় এনআরএফ। ৩২ বছর বয়সী মাসুদ পাঞ্জশির প্রয়াত গেরিলা কমান্ডার আহমদ শাহ মাসুদের ছেলে। সাবেক সোভিয়েত বাহিনী ও পরে তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই করে ‘পাঞ্জশিরের সিংহ’ বলে পরিচিতি পান আহমদ শাহ মাসুদ।

সারাবাংলা/এএম





Source link