পাকিস্তানে প্রথমবার বিচারক হলেন হিন্দু নারী

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ইসলামী রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত পাকিস্তানে প্রথমবারের মতো বিচারপতি হতে যাচ্ছেন একজন হিন্দু নারী। তার নাম সুমন কুমারী। জন্মস্থান পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে। সেখানকার দেওয়ানি আদালতের বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। খুব শিগগিরই তার শপথ নেয়ার কথা রয়েছে।

পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডনের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, সুমনা কুমারীর জন্ম সিন্ধু প্রদেশের কাম্বার শাহাদাতকোট জেলায়। নিজ জেলাতেই তিনি দায়িত্ব পালন করবেন। হায়দ্রাবাদ থেকে আইনে স্নাতক সম্পন্ন করার পর করাচির সেবিস্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

!-- Composite Start -->
Loading...

সুমন কুমারীর বাবা পবন কুমারের ভাষ্য অনুযায়ী, কাম্বার শাহাদাতকোট জেলার দরিদ্র মানুষকে বিনামূল্যে আইনি সেবা দিতে চান সুমন কুমারী। তার বাবা বলেন, ‘সুমন এক চ্যালেঞ্জিং পেশাকে বেছে নিয়েছে। কিন্তু আমি নিশ্চিত, কঠোর পরিশ্রম আর সততা দিয়ে সে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাবে একদিন।’

বিচারক হওয়ার পর সুমন কুমারীর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, ‘সিন্ধু প্রদেশের অনগ্রসর এলাকার দরিদ্র মানুষের আইনি বিষয়ে কতটা পরামর্শ দরকার তা আমি জানি। আমার এ পেশায় আসার কারণ তারাই। এই অবস্থানে আসার পেছনে আমার বাবা ও পরিবারের অবদান অনেক বেশি। কারণ, আমাদের সম্প্রদায় থেকে এ পেশায় একজন নারীর আসাটা খুব সহজ নয়।’

তবে সুমন কুমারী দেশটির প্রথম হিন্দু সম্প্রদায়ের বিচারক নন। তার আগে বিচারক রানা ভগবানদাস ২০০৫ ও ২০০৭ সালের মধ্যবর্তী সময় পাকিস্তানের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.