ন্যাপ’র নেতা ভাষা সৈনিক গোলাম সারওয়ার খানের ইন্তেকাল : বিভিন্ন সংগঠনের শোক

0
282

মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ঘনিষ্ট অনুসারী, জাতীয় নেতা মশিউর রহমানের ঘনিষ্ট সহযোদ্ধা, প্রবীণ রাজনীতিক, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ’র সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ্ব গোলাম সারওয়ার খান গত ১৫ এপ্রিল বুধবার ঢাকার সায়দাবাদস্থ নিজ বাসভবনে বার্ধক্যজনিত কারণে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। তিনি ৪ পুত্র, তিন কণ্যা, ২০ নাতি-নাতনি সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

সদালাপি, বন্ধুভাবাপন্ন, নিরহংকার এই প্রবীণ রাজনীতিক ও সমাজসেবক বাংলাদেশ ন্যাপ’র সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসাবে আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করেছেন। এলাকায় পাখি খান হিসাবে পরিচিত এই প্রবীন নেতা এম এ গনি আদর্শ কলেজের গভর্ণিং বডি সভাপতি হিসাবেও দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেছেন।

এদিন রাতেই সিলেটের মৌলভীবাজর জেলার কুলাউড়া উপজেলার দাউদপুর গ্রামের নিজবাড়ীর পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

প্রবীণ রাজনীতিক ও ভাষা সৈনিক আলহাজ্ব গোলাম সারওয়ার খানের ইন্তেকালে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

শোকবার্তায় নেতৃদ্বয় মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, গোলাম সারওয়ার খানের মৃত্যুতে বাংলাদেশ ন্যাপ ও দলের নেতা-কর্মীরা হারালো একজন অভিজ্ঞ অভিভাবগকে।

তারা বলেন, ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ৬৯ এর অভ্যুত্থান, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং স্বাধীনতা পরবর্তী প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তার অবদান জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

বাংলাদেশ ন্যাপ’র সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ভাষা সৈনিক গোলাম সারওয়ার খানের ইন্তেকালে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা ও মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে বাংলাদেশের রাজনীতিতে তার অবদান আমরা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবো।

প্রবীণ রাজনীতিক ও ভাষা সৈনিক গোলাম সারওয়ার খানের ইন্তেকালে আরো শোক প্রকাশ করেছেন জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও সমন্বয়ক মো. মহসিন ভুইয়া, বাংলাদেশ ন্যাপ প্রেসিডিয়াম সদস্য সুব্রত বারুরী, সাদ্দাম হোসেন, মনির এনায়েত মল্লিক, ব্যারিষ্টার মশিউর রহমান গানি, ভাইস চেয়ারম্যান কাজী ফারুক হোসেন, স্বপন কুমার সাহা, যুগ্ম মহাসচিব মো. নুরুল আমান চৌধুরী, আতিকুর রহমান, এহসানুল হক জসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ যুব ন্যাপ সমন্বয়কারী বাহাদুর শামিম আহমেদ পিন্টু, ভাসানী সাহিত্য-সাংস্কৃতিক পরিষদের আহ্বায়ক মতিয়ারা চৌধুরী মিনু ও সদস্য সচিব মো. সোলায়মান সোহেল।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে