‘নাছির-নওফেল গ্রুপের’ পাল্টাপাল্টি ইউনিট সম্মেলন

115


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ডের তিনটি ইউনিটে আওয়ামী লীগের পাল্টাপাল্টি সম্মেলন হয়েছে। বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের দলে ঢোকানোর অভিযোগ এনে পাল্টা সম্মেলন করে তৃণমূলের একাংশ, যারা নিজেদের শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। আর নগর আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্তে সম্মেলন যারা করেছেন, তারা সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) ওয়ার্ডের ছয়টি স্থানে পাল্টাপাল্টি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। আ জ ম নাছিরের অনুসারী হিসেবে পরিচিতরা উত্তর কাট্টলীর সিডিএ প্রভাতী স্কুল, সুজানা স্কয়ার ও বিশ্বাস পাড়ায় সম্মেলন করে। তাদের বিরোধীরা উত্তর কাট্টলী জয়তারা প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাট্টলী কমিউনিটি সেন্টার ও নতুন মনছুরাবাদে সম্মেলন করে।

এর আগে, গত বুধবার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও নগর কমিটির বর্তমান সদস্য এম এ জাফর মহানগর আওয়ামী লীগ বরাবারে একটি লিখিত অভিযোগে সম্মেলন স্থগিতের আবেদন জানান। আবেদনে তিনি অভিযোগ করেন, বিএনপির মো. ইদ্রিছকে এ ইউনিটের প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে। পাশাপাশি ওয়ার্ডের আহ্বায়ক কাউন্সিলর নিছার আহমেদ মনগড়াভাবে সম্মেলনের প্রস্তুতি নিয়েছেন।

কিন্তু সম্মেলন স্থগিত না করায় ওই পক্ষ পাল্টা সম্মেলন করে পৃথক কমিটি ঘোষণা দিয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. এমদাদ বলেন, ‘দলের প্রকৃত নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের দলে ঢোকানো হয়েছে। আমরা এর প্রতিবাদে সম্মেলন স্থগিত করার কথা বলেছিলাম। কিন্তু তারা সম্মেলন স্থগিত করেনি। এজন্য আমরা যারা সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী এবং বর্তমানে উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের সঙ্গে আছি, তারা পাল্টা সম্মেলন করে কমিটি ঘোষণা করেছি।’

অন্যদিকে, উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিছার আহমেদ বলেন, ‘ইদ্রিছ ১৯৯৬ সাল থেকে আওয়ামী লীগ করে। তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। যারা পাল্টা সম্মেলন করেছে তাদের কোনো বৈধতা নেই।’

সারাবাংলা/আরডি/টিআর





Source link