নওগাঁ-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী ভোট বর্জন

0
52

নয়ন বাবু, নওগাঁ : নওগাঁ-৬ (রানীনগর-আত্রাই) আসনে উপ-নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না মর্মে অবশেষে নানা অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জন করেছেন বিএনপির প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম। শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় আত্রাই উপজেলা বিএনপির পার্টি অফিসে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে এ সংবাদ সম্মেলনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয়া হয়।

বিএনপি প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম বলেন, সকল কেন্দ্র থেকে আমার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। সকাল থেকে ভোটের কোন পরিবেশ নাই। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনার কে কয়েকবার বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। কিন্তুু তিনি দৃশ্যমান কোন পদক্ষেপ নেননি। ভোট কেন্দ্র আওয়ামীলীগের দখলে। বর্তমানে আওয়ামী নির্বাচন হচ্ছে। যারা ভোট দিতে কেন্দ্র গিয়েছে তাদের নিকট থেকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে পরে ইভিএম মেশিনে নৌকা মার্কার বাটন চেপে নৌকায় ভোট দেয়া হয়েছে। নির্বাচনের দুইদিন আগে থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়ি ছাড়া করা হয়েছে। শুরু থেকে ধারাবাহিক ভাবে হামলা মামলা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ভোটে কোনো রকম নিয়ম মানা হচ্ছে না। তারা বিজয়ী হতে যা করার প্রয়োজন তারা করছেন। এটাকে কোন নির্বাচন বলা যায় না। এখানে সরকার, নির্বাচন কমিশনার ও আইনশৃঙ্খলা এক ও অভিন্ন। কিন্তুু এই নির্জলজ্জ কমিশনারের কাজের এবং কথায় কোন মিল নেই। সরকারের এটি প্রহসনের নির্বাচন এবং সাজানো নির্বাচন। এই নির্বাচন আমরা মানি না। এজন্য নির্বাচন বর্জন করছি।

এসময় জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. এবিএম রফিকুল ইসলাম, বিএনপি নেতা আমিনুল ইসলাম বেলাল, আত্রাই উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল জলিল চকলেট, শফিকুল ইসলাম বেলাল, মান্নান সরদার, সিনিয়র সদস্য তসলিম উদ্দিন, যুবদলের আহ্ববায়ক একরামুল বারী রজনু, যুগ্ম আহ্বায়ক খোরশেদ আলম উপস্থিত ছিলেন।

উপনির্বাচনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হোসেন বলেন, ভোট সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু পরিবেশে সম্পন্ন হচ্ছে। বিএনপি প্রার্থীর কোনো এজেন্টই দিতে পারেননি। তাদের এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়। মিথ্যাচার করা বিএনপির কাজ।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিভিন্ন কেন্দ্রে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনেক কেন্দ্র বিএনপির কোনো এজেন্ট দেওয়া হয়নি। বড় ধরনের সহিংসতা কিংবা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।