দুর্নীতবাজ ও ধর্ষকদের সামাজিকভাবে বর্জন করতে হবে : মোস্তফা

0
184

দুর্নীতি-দুবৃত্তায়ন ও হত্যা-ধর্ষণের ভয়াবহতা যেভাবে সমগ্র সমাজে প্রতিনিয়ত যে ভাবে বিস্তার লাভ করছে তাতে সমগ্র জাতি এখন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, দুর্নীতবাজ ও ধর্ষকদের সামাজিকভাবে বর্জন করতে হবে, প্রতিরোধ করতে হবে।

শনিবার (৩ অক্টোবর) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে খাসখবর পত্রিকার সম্পাদক মারুফ সরকারের নানা বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. জিন্নাহ তালুকদারের প্রথম মৃতু্যবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির উদ্দ্যোগে আয়োজিত স্মরণ ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মরহুম জিন্নাহ তালুকদার যে শোষণমুক্ত-দুর্নীতিমুক্ত দেশের স্বপ্ন দেখতেন তা এখনও অধরা রয়ে গেছে। রাষ্ট্র নারী ও শিশুদের ধর্ষণ ও এর শিকারদের সামাজিক সুরক্ষা দিতে পারছে না। অন্যদিকে ধর্ষকদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার বিষয়টিও জোরালো হচ্ছে না। ফলে হত্যা-ধর্ষণ প্রতিরোধে সরকারের ব্যর্থতায় সমগ্র জাতি আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।

তিনি আরো বলেন, সরকারের জবাবদিহিতার অভাবেই সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর সামনে স্ত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। অন্যদিকে সৌদি আরব প্রবাসী হাজার হাজার শ্রমিক বিক্ষোভ করছে ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার ফলে, এখন পর্যন্ত তাদের ভিসার মেয়াদ পুনরায় নিবন্ধন করা হয়নি। অথচ এগুলো সরকারের দায়িত্ব। সরকারের দায়িত্বশীল মন্ত্রীরা এই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে।

সংগঠনের চেয়ারম্যান মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন সংগঠনের মহাসচিব এডভোকেট সাইফুল ইসলাম সেকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন আল আমিন, কেন্দ্রীয় নেত্রী ডা. আসমা আক্তার মৌসুমী, শহিদুল ইসলাম সাইফুল, মো. আল আমিন, মিস চম্পা প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা মরহুম জিন্নাহ তালুকদারের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বলেন, মানবতাবাদী একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই তার প্রতি যথাযথ সমআন জানানো সম্ভব হবে। আর এর জন্য প্রয়োজন আইনের শাসন প্রতিষ্ঠাল লক্ষে সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করা। মরহুম জিন্নাহ তালুক ছিলেন একজন পরিপূর্ণ দেশপ্রেমিক ও জাতীয়তাবাদী সৈনিক।

তিনি বলেন, দেশে ধর্ষণের ঘটনা এমনভাবে বেড়েছে যাতে বিশ্বের সামনে আমাদের মাথা নিচু হয়ে যাচ্ছে। স্বামীর সামনে স্ত্রী গণধর্ষণের শিকার এমন বীভৎস ঘটনার দায় কেউ এড়াতে পারে না। আমরা প্রতিটি ধর্ষণের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।