দিল্লিতে হিন্দু-মুসলিম সংঘর্ষ: গুঁড়িয়ে দেওয়া হল মন্দির, রিপোর্ট তলবেরর নির্দেশ অমিত শাহের

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ এবার রাজধানী দিল্লির বুকে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ। পার্কিং নিয়ে দুই গোষ্ঠীর বিবাদে হামলা চলল একটি মন্দিরের উপর। ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হল হিন্দু দেবদেবীর মূর্তি। সমস্ত ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

খোদ রাজধানীর বুকে এহেন ঘটনায়, দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়কের সঙ্গে বুধবার আলোচনায় বসেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সমস্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেন তিনি। বৈঠকের পর সাংবাদিকরে পট্টনায়ক জানান, সার্বিক পরিস্থিতিই তাঁর কাছে জানতে চেয়েছেন শাহ। আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। তিনি আরও জানান, স্পর্শকাতর এলাকায় যথেষ্ট বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ইতিমধ্যে চার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে বাকি হামলাকারীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। কোনওভাবেই এলাকার শান্তি বিঘ্নিত হতে দেওয়া যাবে না বলেও আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার। পুলিশ বাহিনীর পাশাপাশি ওই এলাকায় ১ হাজার সিআরপিএফ জওয়ানও মোতায়েন করা হয়েছে। এখনও এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে। বন্ধ রয়েছে দোকানপাট।

এই ঘটনার সূত্রপাত রবিবার, দিল্লির ব্যস্ত চাঁদনি চকের হউজ কাজি এলাকায় ফলবিক্রেতা সঞ্জীব গুপ্তার বাড়ির সামনে আস মহম্মদ নামে এক ব্যক্তি গাড়ি রাখেন। প্রতিবাদ করলে গুপ্তার সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন মহম্মদ। গাড়ি নিয়ে জায়গা ছেড়ে চলে যান তিনি। তবে তখনকার মতো গোলমাল মিটছে বলে মনে করলেও, সমস্যা তৈরি হয় তারপর। অভিযোগ, কিছুক্ষণ বাদে বেশ কিছু সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজন নিয়ে সঞ্জীব গুপ্তার বাড়িতে চড়াও হন আস মহম্মদ। গুপ্তার বাড়ির সঙ্গে হামলা চালানো হয় পাশের একটি মন্দিরেও। ভেঙে ফেলা হয় দেবদেবীর মূর্তি। সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। তবে সংঘর্ষের পর এখনও এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে।

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.