দই কাবাব | খুব সহজে বানিয়ে ফেলুন মজাদার আইটেমটি!

82


‘কাবাব’ নামটি শুনলেই সবার আগে মনে হয় মাছ অথবা মাংসের কথা। গরম গরম বিরিয়ানি, পোলাও অথবা খিচুড়ি, সব কিছুর সাথেই কাবাব বেশ ভালো জমে। আবার খাবার শেষে হয়তো দই দিয়ে বানানো কোনো ডেজার্ট বা ড্রিংকস থাকে। কেমন হয়, যদি দই দিয়ে বানানো আইটেমটা খাবারের শুরুতেই থাকে? বলছিলাম, দই কাবাব এর কথা। দই দিয়ে বানানো এই কাবাবটি বাহির থেকে ক্রিসপি, ভেতরে একদম সফট। যে কোনো ঘরোয়া আয়োজন, উৎসব বা অনুষ্ঠানে এই আইটেমটি খাবারে যোগ করবে ভিন্ন মাত্রা। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেই দই কাবাবের রেসিপিটি।

দই কাবাব বানাতে যা যা লাগবে

  • ২ কাপ টক দই
  • ১/৩ কাপ পনির (ভেঙে গুঁড়ো করে নেওয়া)
  • ১/২ কাপ পাউরুটির গুঁড়ো
  • ১/৪ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি
  • ১/২ চা চামচ আদা বাটা
  • ১/২ চা চামচ রসুন বাটা
  • ১ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুঁচি
  • ২/৩টি কাঁচা মরিচ কুঁচি
  • ১ চা চামচ গরম মশলা
  • ১ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুঁচি
  • ২ টেবিল চামচ রোস্টেড বেসন (শুকনো কড়াইতে নেড়ে নেওয়া)
  • লবণ স্বাদমতো
  • কাজু ও কাঠবাদাম ৮/১০ টি (ছোট করে কেটে নেওয়া)

যেভাবে বানাবেন

১। দই কাবাব বানানোর জন্য দই থেকে আগে পানি বের করে নিতে হবে। আগের রাতে একটি পাতলা কাপড়ে বেঁধে কয়েক ঘন্টা দই ঝুলিয়ে রেখে দিন। কাপড়ের নিচে একটি বাটি রাখুন। সকালে দইয়ের পানি সেই বাটিতে জমে যাবে। এবার এই পানি ঝরানো দই দিয়েই বানিয়ে নিতে হবে কাবাব।

২। দই ও পনির একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

দই কাবাব

৩। এই মিশ্রণে এবার একে একে বাদাম, পেঁয়াজ কুঁচি, আদা বাটা, রসুন বাটা, মরিচ কুঁচি, ধনেপাতা কুঁচি, গরম মসলা, লবণ, বেসন ও পাউরুটি গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। কিছুটা পাউরুটি গুঁড়ো আলাদা রেখে দিন।

৪। ভালো করে মাখানো হয়ে গেলে মিশ্রণটি দিয়ে গোল ও চ্যাপ্টা ধরনের টিকিয়া বানিয়ে নিন।

৫। এবার টিকিয়াগুলো রেখে দেওয়া পাউরুটির গুঁড়োতে গড়িয়ে নিন।

৬। এবার গরম ডুবো তেলে কাবাবগুলো ভেজে নিন। ভাজার সময় খেয়াল রাখতে হবে তেলে যেন কাবাবগুলো বেশি ভাজা না হয়। এতে দই গলে বেরিয়ে আসতে পারে। এক পাশ হয়ে গেলে অন্য পাশ উল্টে দিন। গাঢ় সোনালি রং হয়ে এলে তুলে নিন।

এই তো জেনে নিলেন, ভিন্ন স্বাদের মজাদার দই কাবাব বানানোর রেসিপিটি। ধনেপাতা বা পুদিনার চাটনি দিয়ে গরম গরম তো খাওয়া যাবেই, পোলাও, বিরিয়ানি বা খিচুড়ির সাথেও নতুন স্বাদ যুক্ত করবে এই দই কাবাব। ঘরোয়া আয়োজনগুলোতে একটু ভিন্ন স্বাদের খাবার কিন্তু পরিবেশনেও আনে নতুনত্ব। আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আবারও চলে আসবো নতুন কোনো রেসিপি নিয়ে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

ছবিঃ সাটারস্টক





Source link