তাজমহলকে শিবের মন্দির দাবি :নিয়মিত পুজো দেওয়ার ঘোষণা শিবসেনার’

প্রতিবেশী নিউজ ডেস্ক:তাজমহলকে শিবের মন্দির দাবি করে সেখানে নিয়মিত পুজো ও যজ্ঞের আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে ডানপন্থী হিন্দু সংগঠন শিবসেনা। শিব সেনার আগ্রা শহর কমিটির সভাপতি ভিনু লাভানিয়ার এমন ঘোষণায় ভারতের এই অন্যতম পর্যটন কেন্দ্রের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

দিন তিনেক আগে ভিনু লাভানিয়া বলেন, “তাজমহল কোনো মুসলিম সৌধ নয়। এটা তেজো মহালয়া, ভগবান শিবের মন্দির। আমরা গোটা শ্রাবণ মাসজুড়ে প্রতি সোমবার তাজমহলে ঢুকে যজ্ঞ এবং পুজো করতে চাই।”

শিবসেনার এই নেতা প্রশাসনকে হুমকি দিয়ে বলেছেন, সোমবার যে কোনোভাবে তারা মন্দিরে (তাজমহলে) ঢুকবেনই। প্রশাসন বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তার ফল ভালো হবে না।

সংবাদ প্রতিদিন জানায়, শিবসেনার এই হুমকির পর নড়েচড়ে বসেছে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া। এএসআই-এর তরফে যোগী আদিত্যনাথের সরকারকে একটি চিঠি লেখা হয়েছে। চিঠিতে তাজমহলের নিরাপত্তা বাড়াতে অনুরোধ করা হয়।

এএসআই জানায়, ১৯৫৮ সালের প্রত্নতত্ত্ব আইন অনুযায়ী কোনো পুরাতাত্ত্বিক সৌধ বা ঐতিহ্যশালী নির্মাণে পুজো বা কোনো ধর্মীয় আচরণ নিষিদ্ধ।

এএসআইয়ের এই চিঠি পেয়ে যোগী প্রশাসন তাজমহলের নিরাপত্তা বাড়িয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন সূত্রের খবর, তাজমহল ঘিরে যাতে অযাচিত বিতর্কের সৃষ্টি না হয়, তা নিশ্চিত করতে চায় সরকার।

অবশ্য তাজমহলের ভেতরে পুজো অর্চনা নতুন কিছু নয়। গত বছরই তাজমহলে ঢুকে পড়ে রীতিমতো পুজোর আয়োজন করে ফেলেছিল মহিলাদের একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। এর আগে ২০০৮ সালেই শিবসেনা কর্মীদের একটা দল তাজমহলে ঢুকে পড়েছিল এবং সেখানে যজ্ঞের আয়োজন হয়েছিল।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কে পি সিং জানিয়েছেন, “এএসআই’র অনুরোধ অনুযায়ী নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে এমন কোনো কিছুই আমরা হতে দেব না।”

মতামত দিন

Post Author: newsdesk

A thousand enemies is not enough; a single enemy is. There is nothing as a ‘harmless’ enemy.