তফসিল ঘোষণার অপেক্ষায় বিএনপি

0
65

bnp logo

ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ এর উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর এই দুই আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করবে বিএনপি। দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শনিবার দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবীর রিজভী সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানিয়েছেন।

এতে বলা হয়, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে ঢাকা এবং সিরাজগঞ্জ দুটি আসনের উপনির্বাচনের প্রার্থী চূড়ান্ত করা তফসিল ঘোষণা না করা পর্যন্ত অপেক্ষা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়া স্থানীয় সরকারের যেসব উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠানের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে সেগুলোতে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ও উপজেলা ইউনিটগুলোর সুপারিশকৃত প্রার্থীদের মনোনয়নের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মহাসচিবকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়।

সভায় পুনরায় চতুর্থ বারের মতো বন্যা দেখা দেওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয় এবং জাতীয় ত্রাণ কমিটিকে বন্যাদুর্গত এলাকায় ত্রাণ তৎপরতা বাড়ানোর অনুরোধ করা হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে দলের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড পুনরায় শুরুর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

পেঁয়াজসহ অন্যান্য খাদ্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বিশেষ করে হঠাৎ করেই ভারত সরকারের পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞার কারণে পেঁয়াজের মূল্য অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। সরকার পেঁয়াজ আমদানি ও সরবরাহ নিশ্চিত করার কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ না করার ফলে জনগণ যে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তাতে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। অবিলম্বে পেঁয়াজসহ অন্যান্য খাদ্যপণ্যের মূল্য সাধারণ জনগণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয় এবং দেশে পেঁয়াজসহ অন্যান্য খাদ্যপণ্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষকদের প্রয়োজনীয় প্রণোদনার দাবি জানানো হয়।

কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন, যা কয়েকটি দেশে এবং কোম্পানি উদ্ভাবনের দাবি করছে সে বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সাথে মতবিনিময়ের পরে দলীয় অবস্থান নির্ধারণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং একই সঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক অনুমোদিত ভ্যাকসিন প্রাপ্তি সাপেক্ষে জনগণকে যথাসময়ে বিনামূল্যে সরবরাহ করার যে দাবি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করেছেন তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানানো হয়।

বৈঠকে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বেগম সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু যুক্ত ছিলেন।

Source link