ঢাবির ৭ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারের সুপারিশ

0
99

ঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারি – ডিজিটাল জালিয়াতি এবং অবৈধ পন্থা অবলম্বন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া সাত শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। তারা ২০১৩-১৪ থেকে ২০১৬- ১৭ সেশনের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে শৃঙ্খলা পরিষদের এক সভায় এ সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া ক্যাম্পাসের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজ করার জন্য দুইজনকে শোকজ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে যোগ্যতা নির্ধারণ হচ্ছে

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় এবং এর অধিভুক্ত কলেজের ১৪৭ জন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

এসব তথ্য বাংলাদেশ হার্নালকে নিশ্চিত করেছেন শৃঙ্খলা পরিষদের সদস্য সচিব প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী।

পরবর্তীতে এ সুপারিশ বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটে চূড়ান্ত করা হবে।

প্রক্টর বলেন, ডিজিটাল জালিয়াতি এবং অবৈধপন্থা অবলম্বন করে ভর্তি হওয়া সাত শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। ২০১৩-১৪ সেশন থেকে শুরু করে ২০১৬-১৭ সেশনের ভর্তি পরীক্ষায় এসব শিক্ষার্থী ভর্তি জালিয়াতি ও অবৈধভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন এবং আর দুই জনকে সাময়িক বহিষ্কার করে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, বিশ্ববিদ্যালয় এবং অধিভুক্ত কলেজের ১৪৭ জন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করার জন্যে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি প্রদান করা হয়েছে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ১২ ফেব্রুয়ারি

Source link